বৃহস্পতিবার, ২৯ অক্টোবর ২০২০, ০৬:৩৮ পূর্বাহ্ন

দলীয় নেতা কর্মীদের পাশাপাশি পরিবেশবাদীদের আরো বেশি করে গাছ লাগানোর আহবান -দেলোয়ার হোসেন

দলীয় নেতা কর্মীদের পাশাপাশি পরিবেশবাদীদের আরো বেশি করে গাছ লাগানোর আহবান -দেলোয়ার হোসেন

নিজস্ব প্রতিবেদক 
দলীয় নেতা কর্মীদের পাশাপাশি পরিবেশবাদীদের আরো বেশি বেশি করে গাছ লাগানোর আহবান জানান বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের বন ও পরিবেশ বিষায়ক সম্পাদক দেলোয়ার হোসেন। এ সময় তিনি বলেন, আমরা নেত্রীর ৭৪তম জন্মদিন উপলক্ষ্যে সারা বাংলাদেশে ৭৪ হাজার বৃক্ষরোপন করেছি।
এ সময় তিনি, পরিবেশবাদী সংগঠন গুলোর কঠোর সমালোচনা করেছেন আওয়ামী লীগের বন ও পরিবেশ বিষয়ক সম্পাদক দেলোয়ার হোসেন। সমালোচনা করে তিনি বলেন, করোনা চলে আসার কারণে আমাদের জীবন, সারা পৃথিবীর মানুষের জীবন সংকটাপন্ন, সেই সময়ে পরিবেশের জন্য সারা পৃথিবীতে কাজ হয়েছে। কিন্তু বাংলাদেশ পরিবেশ আন্দোলনে যারা প্রথম সারির দাবি করেন, তাদের আপনারা কখনও কোথাও পরিবেশের আপদকালীন সময় পরিবেশ নিয়ে কথা বলতেও দেখেন নি, কাজও করতে দেখেন নি।
বুধবার ( ৩০ সেপ্টেম্বর) ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের বৃক্ষরোপণ কর্মসূচিতে তিনি এ সমালোচনা করেন।
দেলোয়ার হোসেন বলেন, বিপর্যয়ের সময়ে একটি বৃক্ষরোপণ করার জন্য যদি সুলতানা আপাকে আপনারা কোথাও দেখেন, গণমাধ্যমের সঙ্গে যারা সংশ্লিষ্ট আপনারা যদি খুজে পান দয়া করে প্রকাশ করবেন।  আব্দুল সাঈদকে দেখেন প্রকাশ করবেন। লম্বা লম্বা কথা বলবেন, বক্তৃতা দিবেন, শুধু কথা বলবেন, কাজ না করে এনজিওর ব্যবসার জন্য গলা গরম করবেন, পরিবেশ গেলো-পরিবেশ গেলো।
তিনি বলেন, সবচেয়ে বড় বিষয় হলো দেশে বিভিন্ন পরিবেশ আন্দোলনের নেতা-নেত্রী রয়েছে। পরিবেশ উপরে তাদের শিক্ষা-দীক্ষা কতটুকু রয়েছে সে বিষয়ে আমরা প্রশ্ন করতে চাই না। পরিবেশ রক্ষার জন্য কাজটা আমরা কোথায় শিখবো। আপনারা হাতে কলমে আমাদের শিক্ষা দেন না। বিভিন্ন উপকূলে গিয়ে গবেষণা করছেন কিভাবে উপকূল রক্ষা করবেন। বাপাকে ( পরিবেশবাদী সংগঠন) আমরা বলি, আপনারা না কাজ করে শুধু লম্বা লম্বা কাজ কথা বলেন। যদি কাজই করে থাকেন আমরা আপনাদের থেকে শিখতে চাই। পরিবেশ রক্ষার আন্দোলনে আমরা সহযোগিতা করতে চাই।
আওয়ামী লীগের এ নেতা বলেন, শুধু দান পাওয়ার জন্য, বিদেশি পয়সা-ডোনেশন পাওয়ার জন্য কাজ করবেন,  কথা বলবেন,  কিন্তু দেশের পরিবেশে উন্নয়নে কোন কাজে লাগে আমরা জানতে চাই, তরুণ সমাজ সেটা জানতে চাই। ধান কাটার সময় কিন্তু আপনাদের (পরিবেশবাদী) পাওয়া যায় নি জানিয়ে  করোনার ব্যধিতে আপনারা সংকিত, আপনারা বাসার মধ্যে রয়েছেন। আওয়ামী লীগ, ছাত্রলীগের নেতাকর্মীদের পাওয়া গেছে। আওয়ামী লীগ- ছাত্রলীগের নেতাদের পরিবার রয়েছে, তাদের ঘরেও মা-বোন রয়েছে, জীবনের ঝুঁকি রয়েছে। সেই ঝুঁকি মোকাবেলা করে কিন্তু  দেশের প্রতিটি প্রান্তে খাদ্য হাতে, ত্রাণ নিয়ে, ওষুধ নিয়ে করে আমাদের নেতাকর্মীরা গিয়েছে; আপনাদের আমরা পাই নি। পরিবেশ রক্ষার জন্য  আমরা সারাদেশে কাজ করে চলছি আপনাদের আমরা পাই নি।
দেলোয়ার হোসেন বলেন,   সারা পৃথিবীর পরিবেশ উন্নয়নে কাজ করে যাচ্ছেন
আওয়ামী লীগের সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।  পরিবেশ বিপর্যয় রোধে তিনি দেশ-বিদেশে কাজ করে যাচ্ছে। এক গবেষণায় দেখা গেছে পরিবেশ বিপর্যয়ে বাংলাদেশ মাত্র ৪ পারসেন্ট দায়ী কিন্তু আমরা ফলভোগ করি ১৭ পারসেন্ট এর। এই বিপর্যয় আমাদের গ্রাস করছে যার জন্য আমরা দায়ী  না।
তিনি বলেন, আমরা আওয়ামী লীগ, ছাত্রলীগসহ সহযোগী সংগঠনের নেতাকর্মীরা শেখ হাসিনাকে অনুসরণ করে পরিবেশের বিপর্যয় রোধে কাজ করে যাচ্ছি।  পরিবেশের বিপর্যয় রোধে জননেত্রী শেখ হাসিনা ১৯৮৩ সাল থেকে কৃষক লীগের হাত ধরে বৃক্ষরোপণ করে চলছেন। আর তারও আগে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান, সেই  ১৯৫২ সালে ভাষা আন্দোলনের সময় থেকে পরিবেশের জন্য কাজ শুরু করেছেন।  আওয়ামী লীগই পরিবেশ দরদী।  পরিবেশ রক্ষায় কাজ করে চলেছে।

খবরটি শেয়ার করুন..

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




© All rights reserved 2018 khoborbangladesh.com
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com