মঙ্গলবার, ২৪ নভেম্বর ২০২০, ১১:৪৩ পূর্বাহ্ন

শিরোনাম :
চেয়ারম্যানের উপর হামলা : জেলাজুড়ে বাস বন্ধ করে অভিযুক্তদের গ্রেফতার দাবি বরগুনায় যুবলীগ নেতা ইউপি চেয়ারম্যানকে কুপিয়ে গুরুতর জখম সাভার হেমায়েতপুরে সড়ক দুর্ঘটনায় এক যুবক নিহত মিরপুর প্রেসক্লাবে দিনব্যাপী উন্নয়ন সাংবাদিকতার কর্মশালা অনুষ্ঠিত বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে মহানগর দক্ষিণ আওয়ামী লীগের শ্রদ্ধা নিবেদন বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে কলাবাগান থানা ছাত্রলীগের শ্রদ্ধা নিবেদন  বাচ্চাদের তো আমরা মৃত্যুর ঝুঁকিতে ফেলে দিতে পারি না: প্রধানমন্ত্রী ঢাবি ছাত্রী ধর্ষণ মামলায় মজনুর যাবজ্জীবন রকারের বিরুদ্ধে নানা ধরনের দেশি-বিদেশি চক্রান্ত চলছে: কাদের ফরিদপুরে জমিজমা বিরোধকে কেন্দ্র করে স্বামী, স্ত্রী ও সন্তান কে কুপিয়ে হত্যার চেষ্টা
পঞ্চগড়ে  অবৈধভাবে গাছ কাটার অভিযোগ ঠিকাদারের বিরুদ্ধে 

পঞ্চগড়ে  অবৈধভাবে গাছ কাটার অভিযোগ ঠিকাদারের বিরুদ্ধে 

মোঃ বাবুল হোসেন পঞ্চগড় 
পঞ্চগড় সদর উপজেলায় দরপত্র চেয়ে সড়ক থেকে অবৈধভাবে অতিরিক্ত গাছ কেটে প্রতারণা করার অভিযোগ উঠেছে আশরাফ আলী নামে এক ঠিকাদারের বিরুদ্ধে। এছাড়া গাছ কাটার বিষয়টি যাতে বোঝা না যায় সে কারণে গোড়ায় মাটি দিয়ে ঢেকে রেখেছেন ওই ঠিকাদার। এ ঘটনায় স্থানীয়রা ক্ষুব্ধ হয়ে সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার বরাবরে ওই ঠিকাদারের বিরুদ্ধে লিখিত অভিযোগ করেছে।
মঙ্গলবার (৩ নভেম্বর) সকালে জেলার সদর উপজেলাধীন অমরখানা ইউনিয়নে সোনারবান-পাথরকাটা জামাদার পাড়া কাঁচা সড়কের উভয় পাশে এমন চিত্র দেখা গেছে। জানা গেছে, অভিযুক্ত ঠিকাদার আশরাফ আলী একই ইউনিয়নের ধোপাপাড়া গ্রামের বাসিন্দা। অভিযোগ সূত্রে জানা গেছে, অমরখানা ইউনিয়নে শোনারবান গ্রামের আরমান আলীর বাড়ির চৌরাস্তা থেকে পাথরঘাটার জামাদার পাড়া আলাউদ্দিনের বাড়ি পর্যন্ত কাঁচা সড়কের উভয় পাশে ৯৭ ইউক্লিপটাস গাছ কাটার দরপত্র হয়। দরপত্রের মাধ্যমে আশরাফ আলী ১ লাখ ৯০ হাজার টাকা দিয়ে ওই গাছ ক্রয় করেন। পরে তিনি দরপত্রে উল্লেখিত ৯৭টি গাছের বিপরীতে মোট ১০৮টি গাছ কাটেন। তবে এর মধ্যে অতিরিক্ত ১১টি গাছ বেশি কেটেছেন প্রভাব খাটিয়ে। শুধু তাই নয়, তিনি ১১টি গাছ কেটে তার গোড়া মাটি ও ময়লা আর্বজনা দিয়ে ঢেকেও রেখেছেন৷ প্রতারণা করে সরকারি সম্পদ নষ্ট করার কারণে গত ২৮ অক্টোবর ওই ঠিকাদারের বিরুদ্ধে অভিযোগ করেছে স্থানীয়রা। এ বিষয়ে ঠিকাদার আশরাফ আলী বলেন, ‘আমি দরপত্রের মাধ্যমে দুটি সড়কে লাগানো গাছের ডাক পেয়েছি। দুটি সড়কের মধ্যে একটি সড়কে ১১২টি এবং অন্যটিতে ৮৭টি গাছ রয়েছে। আমি যে সড়কের ৯৭টি গাছ ক্রয় করেছি, সেগুলো কাটার সময় ছোট গাছের উপর পড়ে দুই-তিনটা গাছ সড়কে হেলে যায়। এতে সাধারণ মানুষের চলাফেরার সমস্যা হওয়াতে আমি এগুলো লাকড়ি হিসেবে কেটেছি।’ এ বিষয়ে অমরখানা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান নুরুজ্জামান নূর বলেন, ‘অতিরিক্ত গাছ কাটার বিষয়ে অভিযোগ পেয়েছি। বিষয়টি তদন্ত করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে।’
পঞ্চগড় সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ভারপ্রাপ্ত) আমিনুল ইসলাম জানান, অভিযোগ পাওয়া গেছে এবং তদন্ত করে আশরাফ আলীর বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

খবরটি শেয়ার করুন..

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




© All rights reserved 2018 khoborbangladesh.com
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com