বুধবার, ১৫ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১০:৩৭ অপরাহ্ন

শিরোনাম :
সিরাজদীখানে সাংবাদিকের বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলা প্রতিবাদ সভা ও মানববন্ধন   উপজেলা চেয়ারম্যানের অনুমতি নিয়ে কাজ করবেন ইউএনওরা পাঁচ বিদ্যুৎকেন্দ্র রোববার উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী মার্কিন সেনাবাহিনীর আমন্ত্রণে যুক্তরাষ্ট্র যাচ্ছেন সেনাপ্রধান মাগুরায় ১হাজার কৃষ্ণচূড়া গাছ রোপন মিরপুর জার্মান টেকনিক্যাল দালালদের দখলে বিপাকে বিদেশ গমনেচ্ছুক কর্মীরা অধ্যক্ষ হত্যাকারি সেই চেয়ারম্যান আবারো চেয়ারম্যান হওয়ার স্বপ্ন দেখছেন! সংসদ নির্বাচনের প্রস্তুতি নিতে শেখ হাসিনার নির্দেশ চেয়ারম্যান আলতাফ হাওলাদার ফের জেলহাজতে আমি শেখ মুজিবের মেয়ে, শুধু শাসক নই সেবক : প্রধানমন্ত্রী
দর্শক নেই, বিদ্যুৎ বিলের টাকাই উঠছে না

দর্শক নেই, বিদ্যুৎ বিলের টাকাই উঠছে না

বিনোদন প্রতিবেদক

রাজধানীর ৬টি সহ দেশের মোট ২৫ সিনেমা হলে আজ মুক্তি পেয়েছে দেলোয়ার জাহান ঝন্টু পরিচালিত সিনেমা ‘তুমি আছো তুমি নেই’। এ সিনেমার মধ্য দিয়ে নায়িকা হিসেবে অভিষেক ঘটেছে শিশুশিল্পী হিসেবে তুমুল জনপ্রিয়তা পাওয়া দীঘির।

ছবির ট্রেলার হতাশ করে দর্শকদের। ট্রেলারে সমালোচনায় দীঘির এক মন্তব্যকে ঘিরে বেশ সমালোচনা তৈরি হয়। যার কারণে ছবিটি মুক্তি পেলেও আশানুরূপ দর্শক নেই রাজধানীর শ্যামলী সিনেমা হলে। সেখানে চলছে ‘তুমি আছো তুমি নেই’ সিনেমাটি। এরইমধ্যে একটি শো শেষ হয়ে আরও একটি শুরু হলেও তেমন দর্শকের দেখা মেলেনি হলে।

শুক্রবার দুপুরে শ্যামলী সিনেমা হলের দায়িত্বপ্রাপ্ত ম্যানেজার মোহাম্মদ হাসান বাংলাদেশ জার্নালকে বলেন, নতুন সিনেমার প্রতি দর্শকের সবসময়ই একটু বেশি আগ্রহ থাকে। যার কারণে ‘তুমি আছো তুমি নেই’ সিনেমাটি আমরা চালাতে শুরু করি। কিন্তু হতাশ হলাম। যেমনটা আশা করেছিলাম তেমন দর্শক এখনো পাইনি। দুপুরের একটি শো চালিয়েছি যেখানে দর্শক ছিলো না তেমন। হয়তো ৩০/৪০ এর জনের মত হবে। এরপরের শো শুরু হয়েছে কিছুক্ষণ আগে। এই শোতে কিছু দর্শক আছে কিন্তু আশানুরূপ না। ৩০৬ আসনের হলে যদি এত কম দর্শক হয় তাহলে সিনেমা চালানোই কঠিন হয়ে পড়বে।

তিনি আরও বলেন, করোনার কারণে অনেক দিন হল বন্ধ ছিলো। এমনিতেই অনেক টাকা ক্ষতি হয়েছে। এখন যদি আবার সিনেমা হল বন্ধ করে দেই তাহলে তো দর্শকরা আতংকে পড়বে। ২/৩ জন দর্শক হলেও সেটা দিয়েই ছবি চালিয়েছি এরমধ্যে। এখন এই সিনেমারও যদি এমন অবস্থা হয় তাহলে তাই-ই করতে হবে, কিছু করার তো নেই। একটা নতুন সিনেমা আগ্রহ নিয়ে চালালাম সেটা তো নামিয়েও ফেলতে পারিনা!

হতাশার সুরে হলের এই ব্যবস্থাপক বলেন, এমন অবস্থায় হল চালানোই যাচ্ছে না। হলের ব্যবস্থাপনা, কর্মচারী তাদেরকে টাকা-পয়সা দিতেই হিমসিম খেতে হচ্ছে। সিনেমা থেকে বিদ্যুৎ বিলের টাকা-ই উঠছে না। ক্ষতি হলেও হলের মালিক (এম এ হাফিজ) তার নিজস্ব অর্থায়ন থেকে কর্মচারী ও হলের সবকিছুর বিল পরিশোধ করছেন। সিনেমা থেকে টাকা উঠছেই না। এখন দেখা যাক কী হয়!

করোনার কারণে প্রায় ৮ মাস বন্ধ ছিলো দেশের সব সিনেমা হল। গেল বছরের অক্টোবর মাসে বেশ কিছু সিনেমা হল খুললেও খুলেনি শ্যামলী সিনেমা হল। এরপর ‘বিশ্বসুন্দরী’ সিনেমা দিয়ে দীর্ঘ সময় পর খুলেছিলো হলটি।

খবরটি শেয়ার করুন..

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




© All rights reserved 2018 khoborbangladesh.com
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com