ঢাকা ০২:০৫ অপরাহ্ন, রবিবার, ১৪ জুলাই ২০২৪, ৩০ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
শিরোনাম :
যমুনার পানিতে কালিহাতীতে ৩০ হাজার পানিবন্দি মানুষ, নতুন নতুন এলাকা প্লাবিত পদ্মায় অবৈধ বালি উত্তোলনে নদীগর্ভে বিলিন ১০টি বাড়িঘর, হুমকিতে শহর রক্ষা বাঁধ স্পীকারের সাথে ইউরোপীয় ইউনিয়নের রাষ্ট্রদূতের বিদায়ী সাক্ষাৎ সিরাজদিখানে পুলিশের হামলার আহত সাংবাদিক সালমানকে দেখতে গেলেন ওসি সিরাজদিখানে পুলিশের হামলায় সাংবাদিক, অন্তঃসত্ত্বা নারী ও শিশুসহ ৩০ জন আহত: আটক-৯ আদমদীঘিতে জামাই’র বেড়ির আঘাতে শাশুড়ির মৃত্যু  নওগাঁয় বিস্কুট খেয়ে একই পরিবারের দুই কন্যা শিশুর মৃত্যু; গুরুতর অসুস্থ্য-১ ডিপিডিসির ব্যবস্থাপক হুজ্জত ও তাঁর স্ত্রীর বিরুদ্ধে দুদকের মামলা গাজীপুর আওয়ামী লীগে জায়গা পেলেন না জাহাঙ্গীর জসিমের ‘কেলেঙ্কারির’ বিরুদ্ধে ব্যবস্থার তথ্য জানতে চায় আইডিআরএ

থামছেনা সিংগাইরে কেজির দরে তরমুজ বিক্রি সেন্ডিকেটের নিকট ক্রেতারা জিম্মি

সিংগাইর মানিকগঞ্জ থেকে মঞ্জুরুল ইসলাম রতন

গ্রাম্য প্রবাদ আছে সেজনাল ফল খেলে অনেক অসুখ থেকে বেঁচে থাকা সম্ভব, কিন্ত কি ভাবে খাবে? বর্তমান বাজারে সেজনাল ফলের মধ্যে অন্যতম তরমুজ । যার বাজার সম্পূর্ণ অসাধু ব্যবসায়ী সেন্ডিকেটের কবজায়। বিভিন্ন বাজার ও দোকনে জরিমানা গুনলেও মূল পরিকল্পনায় তারা দৃঢ়। থামছেনা সিংগাইরে কেজির দরে তরমুজ বিক্রি, তারা এক তরমুজ থেকে, ২০০ থেকে ৩০০ টাকা লাভ করতেই হবে। তাইতো তারা পিচ কিনে কেজির দরে বিক্রি করছেন তরমুজ। সিংগাইর উপজেলার বিভিন্ন বাজারে ঘুরে দেখা গেছে এর বাস্তব চিত্র। গরীবতো দুরের কথা মধ্যবৃত্তরাও তরমুজ বাজারে শূন্য। এই ফলটা যেনো সোনার হরিণ, অনেক আফসোস করে দীর্ঘ স্বাশ ফেলে বলছে গরীব দুস্ত ও মধ্যমবৃত্তরাও তরমুজ তুমি কার? প্রশাসন এখনও জোরালো ভুমিকা না রাখলে গরীব মধ্যবৃত্ত শ্রেনীর কাছে প্রিয় ফলটি অধরা রয়ে যাবে।

ট্যাগস
জনপ্রিয় সংবাদ

যমুনার পানিতে কালিহাতীতে ৩০ হাজার পানিবন্দি মানুষ, নতুন নতুন এলাকা প্লাবিত

থামছেনা সিংগাইরে কেজির দরে তরমুজ বিক্রি সেন্ডিকেটের নিকট ক্রেতারা জিম্মি

আপডেট টাইম : ০৭:৫৬:১৬ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ৩০ এপ্রিল ২০২১

সিংগাইর মানিকগঞ্জ থেকে মঞ্জুরুল ইসলাম রতন

গ্রাম্য প্রবাদ আছে সেজনাল ফল খেলে অনেক অসুখ থেকে বেঁচে থাকা সম্ভব, কিন্ত কি ভাবে খাবে? বর্তমান বাজারে সেজনাল ফলের মধ্যে অন্যতম তরমুজ । যার বাজার সম্পূর্ণ অসাধু ব্যবসায়ী সেন্ডিকেটের কবজায়। বিভিন্ন বাজার ও দোকনে জরিমানা গুনলেও মূল পরিকল্পনায় তারা দৃঢ়। থামছেনা সিংগাইরে কেজির দরে তরমুজ বিক্রি, তারা এক তরমুজ থেকে, ২০০ থেকে ৩০০ টাকা লাভ করতেই হবে। তাইতো তারা পিচ কিনে কেজির দরে বিক্রি করছেন তরমুজ। সিংগাইর উপজেলার বিভিন্ন বাজারে ঘুরে দেখা গেছে এর বাস্তব চিত্র। গরীবতো দুরের কথা মধ্যবৃত্তরাও তরমুজ বাজারে শূন্য। এই ফলটা যেনো সোনার হরিণ, অনেক আফসোস করে দীর্ঘ স্বাশ ফেলে বলছে গরীব দুস্ত ও মধ্যমবৃত্তরাও তরমুজ তুমি কার? প্রশাসন এখনও জোরালো ভুমিকা না রাখলে গরীব মধ্যবৃত্ত শ্রেনীর কাছে প্রিয় ফলটি অধরা রয়ে যাবে।