শনিবার, ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০২:৫৭ পূর্বাহ্ন

শিরোনাম :
ব্রাজিল-আর্জেন্টিনা ফাইনাল: ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় নেমেছে পুলিশ

ব্রাজিল-আর্জেন্টিনা ফাইনাল: ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় নেমেছে পুলিশ

আর্জেন্টিনা-ব্রাজিল মাঠে নামার আগেই ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় মাঠে নামছে পুলিশ!

ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রতিনিধি

লাতিন আমেরিকান ফুটবলের শ্রেষ্ঠত্বের লড়াই দেখতে দেখতে এখন শেষ পর্যায়ে। ১০ দলের এই টুর্নামেন্ট এখন দুই দলে পরিণত হয়েছে। রোববার (১১ জুলাই) বাংলাদেশ সময় ভোর ৬টায় ব্রাজিলের রিও ডি জেনিরোতের ঐতিহাসিক মারাকানা স্টেডিয়ামে কোপার ফাইনালে মুখোমুখি হতে যাচ্ছে ব্রাজিল-আর্জেন্টিনা।

এই ম্যাচটি ঘিরে দেশের সমর্থকদের মধ্যেও বেশ উত্তেজনা বিরাজ করছে। সম্প্রতি ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় ব্রাজিল-আর্জেন্টিনার সমর্থকদের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনাও ঘটেছে। আহত হয়েছেন বেশ কয়েকজন। ফলে ফাইনাল ম্যাচটি ঘিরে জেলা পুলিশের তৎপরতা বাড়ানো হচ্ছে।

শনিবার সকাল থেকেই ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় পুলিশের পক্ষ থেকে করোনাকালে জনসমাগম ও খেলাকে কেন্দ্র করে সংঘর্ষ রুখতে মাইকিং করে সতর্কতামূলক প্রচারণা চলছে। জেলা শহর ও উপজেলায় অটোরিকশা, সিএনজি ও পিকআপে করে মাইকিং করতে দেখা গেছে।

এ বিষয়ে সদর মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) এমরানুল ইসলাম বলেন, ‘সদর মডেল থানাধীন ১৫টি বিটের কর্মকর্তারা মাইকিং করছে। সড়কের কাছে, মাঠে অথবা খোলা জায়গায় প্রজেক্টরের মাধ্যমে গণজমায়েত হয়ে খেলা দেখা যাবে না। নিজ নিজ বাসায় বসে খেলা দেখতে হবে। এমনকি খেলা শেষে কোনো ধরণের বিজয় মিছিলও করা যাবে না।’

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার পুলিশ সুপার মোহাম্মদ আনিসুর রহমান বলেন, সম্প্রতি কোপা আমেরিকার খেলা নিয়ে ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় পাল্টাপাল্টি হামলার ঘটনা ঘটেছে। এ কারণে ফাইনাল খেলার দিন অতিরিক্ত সতর্কতামূলক ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে। এদিন ভোর ৫টা থেকে মাঠে থাকবে পুলিশের একটি বিশেষ টিম। এছাড়া জেলার ১১৬টি বিটে চারজন করে কাজ করবে। পাশাপাশি গোয়েন্দা তথ্যের ভিত্তিতে বিশেষ ব্যবস্থাও নেয়া হবে।

প্রসঙ্গত, মঙ্গলবার (৬ জুলাই) বিকেলে ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর উপজেলার সাদেকপুর ইউনিয়নের দামচাইল বাজারে নোয়াব মিয়া (৬০) নামে এক ব্যক্তিকে মারধর করেন আর্জেন্টিনা সমর্থক জীবন ও তার সহযোগীরা। ওইদিন সকালে নোয়াব মিয়ার ভাতিজা ব্রাজিল সমর্থক রেজাউলের সঙ্গে খেলা নিয়ে জীবনের বাকবিতণ্ডা ও হাতাহাতি হয়। এর জেরে জীবন ও তার সহযোগীরা রেজাউলের চাচাকে একা পেয়ে মারধর করেন। এ ঘটনার প্রতিবাদে ওইদিন রাতেই জীবনের সহযোগী তিন আর্জেন্টিনা সমর্থককে মারধর করেন ব্রাজিল সমর্থকরা।

বাংলাদেশ থেকে অদূরে ব্রাজিল-আর্জেন্টিনার ম্যাচ অনুষ্ঠিত হলেও দেশে দুই দলের সমর্থকদের এমন সংঘাতে দেশীয় ফুটবল বোদ্ধারা হতবাক। ফুটবল বোদ্ধা ও খেলা প্রেমিকদের মতে, খেলায় জয়-পরাজয় থাকবেই। তবে তা নিয়ে দ্বন্দ্বে জড়ানোর মতো কিছু নেই। দর্শক কেবলই তা উপভোগ করবে। জয়-পরাজয় নিয়ে আলোচনা-সমালোচনা হতে পারে, তবে তা দ্বন্দ্বে জড়ানো কাম্য নয়।

এমন পরিস্থিতিতে বৃহস্পতিবার ও শুক্রবার দেশের গণমাধ্যমে খবর প্রকাশ হতে থাকে, ‘ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় ব্রাজিল-আর্জেন্টিনার ম্যাচে সংঘাত রুখতে পুলিশের বিশেষ টিম’ দায়িত্ব পালন করবে। এমন সংবাদে বার্তা-সংস্থা এএফপির সূত্রে আর্জেন্টিনার বুয়েনস এইরেস টাইমস ব্রাহ্মণবাড়িয়ার এ খবরটি প্রকাশ করে।

আর্জেন্টিনার গণমাধ্যমে বলা হয়, কোপা আমেরিকা ফাইনালের ব্রাজিল-আর্জেন্টিনার ম্যাচকে সামনে রেখে বাংলাদেশের প্রত্যন্ত একটি অঞ্চলে জনসমাগম নিষেধ করেছে পুলিশ। স্থানীয় সমর্থকদের মধ্যে সংঘাতের কারণে এ সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে।

খবরটি শেয়ার করুন..

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




© All rights reserved 2018 khoborbangladesh.com
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com