শুক্রবার, ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৩:০২ অপরাহ্ন

শিরোনাম :
মাহফুজুর রহমানের সঙ্গে ডিভোর্স, আবার বিয়ে করলেন ইভা অনিবন্ধিত ৫৯টি আইপি টিভি বন্ধ সু চিকে আমৃত্যু কারাগারে রাখার ব্যবস্থা করছে সামরিক জান্তা : আইনজীবী ১৬১ ইউনিয়নে নির্বাচন সোমবার, প্রচারণা শেষ আজ ২৪ ঘণ্টা নজরদারিতে থাকবে সামাজিক মাধ্যম বাংলাদেশে কোনো তত্ত্বাবধায়ক সরকার হবে না : কৃষিমন্ত্রী ‘মুক্তিযোদ্ধা প্রজন্ম লীগের’ অনুষ্ঠান বন্ধ করলেন ওবায়দুল কাদের ইরাকের পররাষ্ট্রমন্ত্রীর সাথে বাংলাদেশি রাষ্ট্রদূতের বৈঠাক, জনশক্তি রপ্তানির আশ্বাস দেশের উন্নয়নে যুবলীগকে বিশেষ ভূমিকা রাখতে হবে- মাগুরায় যুবলীগের বর্ধীত সভায় সুব্রত পাল বরগুনায় ১১ মামলার আসামী রিয়াজ১০০ পিচ ইয়াবা সহ গ্রেফতার
সিংগাইর নানা উদ্যোগ-সাফল্যে জনসাধারণের প্রশংসায় ভাসছেন ওসি

সিংগাইর নানা উদ্যোগ-সাফল্যে জনসাধারণের প্রশংসায় ভাসছেন ওসি

মঞ্জুরুল ইসলাম রতন, মানিকগঞ্জ প্রতিনিধি
নানা উদ্যোগ আর সাফল্যে প্রশংসায় ভাসছেন মানিকগঞ্জ জেলার সিংগাইর উপজেলার থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) জনাব সফিকুল ইসলাম মোল্ল্যা। ইতোমধ্যেই নিজের ব্যক্তিগত নানা উদ্যোগে তিনি জনগণের আস্থা ও ভালবাসায় সিক্ত হয়েছেন।
বিশ্বের উন্নত দেশের জনগণ বিপদে-আপদে পুলিশকে পরম বন্ধু হিসাবে দেখে থাকে। এরই ধারাবাহিকতায় বাংলাদেশের পুলিশও যে জনগণের জানমালের সার্বিক নিরাপত্তা নিশ্চিত করে থাকে সেই প্রত্যয়ে তিনি জনসাধারণের জন্য কাজ করে যাচ্ছেন।
যদিও স্বাধীনতাত্তোর বাংলাদেশের পুলিশ কতটা জনগণের আস্থা অর্জন করতে পেরেছে এ নিয়ে অনেক বিতর্ক রয়েছে। কিছু কিছু পুলিশ কর্মকর্তার অপকর্মের কারণে এই বাহিনীর ভাবমূর্তি মাঝে-মধ্যে ক্ষুণ্ণও হচ্ছে। তবে পুলিশের এমনও কিছু কর্মকর্তা রয়েছেন যারা নিজের সুবিধার কথা চিন্তা না করে অসহায় জনগণের পাশে গিয়ে দাঁড়িয়েছেন। দেশ ও জনগণের জন্য নিজেকে নিয়োজিত করেছেন। প্রতিনিয়ত জীবনের ঝুঁকি নিয়ে জনসাধারণের জন্য কাজ করে যাচ্ছেন। এমনই উজ্জ্বল দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছেন সিংগাইর থানার ওসি জনাব সফিকুল ইসলাম মোল্ল্যা অন্যদের সামনে নিজেকে ওসি হিসাবে পরিচয় না দিয়ে জনগণের একজন সেবক হিসাবে পরিচয় দেন তিনি। এভাবেই অতি সাধারণ বেশে জনগণের পাশে থাকার চেষ্টা করেন পুলিশের এই কর্মকর্তা। এমনকি নিজের রুম ছেড়ে বাইরে থানার পাশে বসে সবার সঙ্গে কথা বলেন তিনি। যে কোনো সময় সাধারণ মানুষ তার সঙ্গে সরাসরি দেখা করে যে কোনো বিষয়ে কথা বলে সমস্যার সমাধান নিয়ে থাকেন।
আগস্ট মাসে সিংগাইর থানায় তার রয়েছে নজির বিহীন অর্জন, এর মধ্যে রুজুকৃত নিয়মিত মামলা-৩২টি, মামলা নিষ্পত্তি করেছেন-৩৬টি, যাহা রুজু হইতে নিষ্পত্তি ৪টি বেশি, বর্তমানে থানায় তদন্তাধীণ মামলার সংখ্যা ৮টি, যাহা পূর্বে এ ধরনের কোন রেকর্ড ছিলো না। রুজুকৃত অপমৃত্যু মামলার সংখ্যা ০৬টি, নিষ্পত্তি ০৮টি। গ্রেফতারি পরোয়ানা প্রাপ্তির সংখ্যা ৫টি, মাস শেষে নিষ্পত্তি ০৪টি সাজা পরোয়ানা সহ সর্ব মোট ৪১টি। আগস্ট মাসের রেকর্ড পরিমান অর্জন করে তিনি জনগণের অতি নিকটে যেতে সক্ষম হয়েছেন। এছাড়ও ইতিপূর্বে জুন ও জুলাই মাসে মানিকগঞ্জ জেলার শ্রেষ্ঠ ওসি নির্বাচিত হওয়া সহ উর্ধতন কর্তৃপক্ষের নিকট হইতে পুরস্কৃত হয়েছেন।
জানা যায় জনাব সফিকুল ইসলাম মোল্ল্যা গত ১৫ জুন ২০২১ ইং তারিখে সিংগাইর থানায় যোগদান করেন। যোগদানের পরপরই তিনি জনস্বার্থ ও মানবিক সংশ্লিষ্ট বেশ কয়েকটি কাজ করেছেন। যা ইতোমধ্যেই স্থানীয় জনগণের কাছে প্রশংসিত হয়েছে। বর্তমানে তিনি এলাকার সকল শ্রেণির মানুষের কাছে অতি পরিচিত একজন মানুষ। এর আগে তিনি গাজিপুর জেলার ডিবি ওসি হিসাবে কর্মরত ছিলেন। চাকরি জীবনে উজ্জ্বল সফলতা ও সততার সঙ্গে কাজ করে আসছেন তিনি।
যোগদানের পরপরই সিংগাইর থানাকে দালালমুক্ত ও মাদকমুক্ত থানা হিসেবে ঘোষণা দেন জনাব সফিকুল ইসলাম মোল্ল্যা । এরই মধ্যে সর্বোচ্চ মাদকের মামলা দিয়ে মাদক কারবারি ও সেবনকারীদের মনে আতঙ্কের সৃষ্টি করেছেন তিনি। এমনকি অভিযানে অপরাধীদের গ্রেপ্তারে তিনি নিজেই নেতৃত্ব দিয়ে থাকেন।
তার ব্যতিক্রমী উদ্যোগ হলো- থানায় মামলার সংখ্যা কমিয়ে আনা, ছোট ছোট অপরাধ স্থানীয়ভাবে নিষ্পত্তি, সিংগাইর উপজেলার একটি পৌরসভা ও ১১টি ইউনিয়নের প্রতিটি ওয়ার্ডে কমিউনিটি পুলিশিং সভা, বিট পুলিশিং সভা, সন্ত্রাস ও মাদকবিরোধী সভা, আইনশৃঙ্খলা স্বাভাবিক রাখতে প্রত্যন্ত এলাকায় পাহারা জোরদার, স্কুল-কলেজে স্টুডেন্ট কমিউনিটি সভা, ইভটিজিং ও বাল্যবিবাহ বন্ধসহ নারী ও শিশু নির্যাতন প্রতিরোধে সমাবেশ। কোনো মহল থেকে প্রভাবিত না হয়েই ন্যায়সঙ্গত কাজ করেই ব্যাপক জনপ্রিয়তা পেয়েছেন তিনি।
এলাকায় প্রায় প্রতিটি সভা তার পরিচালনায় হয়েছে। এসব জনসভায় বক্তব্যকালে ওসি জনাব সফিকুল ইসলাম মোল্ল্যা বলেন, ‘মুজিববর্ষের অঙ্গীকার পুলিশ হবে জনতার’- এই স্লোগানকে সামনে রেখে তিনি জনগণের খুব কাছাকাছি যেতে চান। জাতির জনকের স্বপ্ন বাস্তবায়নে সকলে মিলে কাজ করে দেশকে সোনার বাংলা গড়ার দৃঢ় প্রত্যয়ী তিনি। এরই ধারাবাহিকতায় সিংগাইর থানাকে একটি সুসজ্জিত, সু-শৃঙ্খল ও সেবামূলক প্রতিষ্ঠান হিসেবে গড়ে তোলাই লক্ষ্য তার।
এ ব্যাপারে সিংগাইর থানার অফিসার ইনচার্জ জনাব সফিকুল ইসলাম মোল্ল্যা জাতীয় দৈনিক খবর বাংলাদেশকে বলেন, ‘আমি এই থানায় কর্মরত থাকা অবস্থায় কোনো সন্ত্রাস ও মাদক থাকতে পারবে না। মাদকের সঙ্গে জীবনে কখনো আপস করিনি, আর করব না। তবে মাদক পুরোপুরি নির্মূল করতে সাংবাদিকসহ সকলের সহযোগিতা প্রয়োজন।’
পুলিশ জনগণের সেবক ও বন্ধু উল্লেখ করে তিনি বলেন, সমাজ থেকে সন্ত্রাস-জঙ্গিবাদসহ সকল অপকর্ম দূর করতে আমাদের সকলকে একযোগে কাজ করতে হবে। এরই মধ্য দিয়ে বঙ্গবন্ধুর সোনার বাংলা বাস্তব রূপ পাবে।
আর তার এই সফলতার পেছনে যাদের অবদান রয়েছে তাঁরা হলেন, বর্তমান ঢাকা রেঞ্জের (ডি.আই.জি) মহোদয় জনাব হাববিুর রহমান বপিএিম(বার), পপিএিম(বার) ও মানিকগঞ্জ জেলার পুলিশ সুপার জনাব মোহাম্মদ গোলাম আজাদ খান, পিপিএম-বার, অতিঃ পুলিশ সুপার (প্রশাসন ও অপরাধ) জনাব মোহাঃ হাফিজুর রহমান এবং সহকারী পুলিশ সুপার, সিংগাইর সার্কেল, জনাব মোহাঃ রেজাউল হক।

খবরটি শেয়ার করুন..

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




© All rights reserved 2018 khoborbangladesh.com
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com