ঢাকা ০৩:১১ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ১৫ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ
শিরোনাম :
ভূল অসত্য সংবাদ পরিবেশন করায় ব্যবসায়ীর  সংবাদ সম্মেলন কেটালী পাড়ায় দিনে দুপুরে সরকারী কোয়াটারে চুরি জনবান্ধব ভূমি সংস্কারে অগ্রাধিকার দিচ্ছে সরকার: ভূমিমন্ত্রী ভূমি অফিসে যেন কোনো দালাল না থাকে: মন্ত্রী ফায়ার সার্ভিসের স্টেশন অফিসার শাহীন আলম বিলাশবহুল ৮তলা বাড়ীর মালিক! মুক্তিযুদ্ধের চলচ্চিত্র ‘অপারেশন জ্যাকপট’ নিয়ে এতো অনাসৃষ্টি কেন? চকরিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য ও প:প: কর্মকর্তা ডা: শোভন দত্তের বিরুদ্ধে সরকারী টাকা আত্মসাত,বিদেশে টাকা পাচার,অবৈধ সম্পদ অর্জন ও নারী কেলেংকারীর অভিযোগ! দদুকের তদন্ত থাকা কর্মকর্তাকে চুক্তিভিত্তিক ডিজি নিয়োগের তোড়জোড়! গাজীপুর সিটি করপোরেশনের গাড়িচাপায় শ্রমিক নিহত, মহাসড়ক অবরোধ মির্জাগঞ্জে আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা ও  শহীদ  দিবসে বাংলাদেশ সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় শিক্ষক সমিতির শ্রদ্ধা নিবেদন 

মহম্মদ পুরে যৌন হয়রানির প্রতিবাদ করায় মা-মেয়েকে পিটিয়ে জখমের অভিযোগ

মাহামুদুন নবী
মাগুরা  মহম্মদপুর উপজেলার পাচুড়িয়া গ্রামে কু-প্রস্তাব ও যৌন হয়রানীর প্রতিবাদ করায় এক শিক্ষক ও তার মাকে পিটিয়ে জখমের অভিযোগ উঠেছে স্থানীয় খোকন রায় নামে এক যুবকের বিরুদ্ধে। এমন অভিযোগ করেছেন ভুক্তভোগীরা।
শনিবার (১৩ ফেব্রুয়ারি) বিকালে মাগুরা ২৫০ শয্যা হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।অভিযুক্ত খোকন রায় মহম্মদপুরের ভিটে পাড়া গ্রামের লক্ষীপদ রায়ের ছেলে।
ওই স্কুল শিক্ষকের মা রিপা রানী জানান, তার মেয়ে স্থানীয় একটি মন্দিরের গণশিক্ষা কার্যক্রমের একজন শিক্ষক। দীর্ঘদিন ধরে খোকন রায় স্কুলে আসা যাওয়ার পথে তার নাতনিকে উত্ত্যক্ত করছিলেন। পাশাপশি কুপ্রস্তাবও দিতেন। শনিবার সকালে খোকন রায় তাদের বাড়ির সামনে এসে তার নাতনিকে একইভাবে উত্ত্যক্ত করেন। এ সময় তার মেয়ে ও নাতনি প্রতিবাদ করলে বাঁশ দিয়ে খোকন রায় তাদের পিটিয়ে আহত করেন। এ সময় তাদের চিৎকারে স্থানীয়রা এগিয়ে এলে খোকন রায় পালিয়ে যান। প্রথমে তারা বাড়িতে প্রাথমিক চিকিৎসা নেন। বিকালে বেশি অসুস্থ হয়ে পড়লে পরিবারের অন্যরা তাদের মাগুরা ২৫০ শয্যা হাসপাতালে ভর্তি করে।
নির্যাতিতা স্কুল শিক্ষকের চাচা নিধির বিশ্বাস বলেন, ‘বখাটে যুবক দীর্ঘদিন ধরে আমার ভাতিজিকে উত্ত্যক্ত করছিল। শনিবার বাড়ি এসে মারধর করেছে। আমরা এ ব্যাপারে থানায় অভিযোগ দেব।’
অভিযুক্ত খোকন রায় অভিযোগ অস্বীকার করে বলেন,‘আমি কাউকে মারধর করিনি। বরং মা-মেয়ে মিলে আমাকে মেরেছে। পরে আমাকে ফাঁসানোর জন্য হাসপাতালে ভর্তি হয়েছে।’
মহম্মদপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) নাসির উদ্দিন বলেন, ‘লিখিত অভিযোগ পেলে এ বিষয়ে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’
ট্যাগস
জনপ্রিয় সংবাদ

ভূল অসত্য সংবাদ পরিবেশন করায় ব্যবসায়ীর  সংবাদ সম্মেলন

মহম্মদ পুরে যৌন হয়রানির প্রতিবাদ করায় মা-মেয়েকে পিটিয়ে জখমের অভিযোগ

আপডেট টাইম : ০৪:৫৭:২৪ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ১৬ ফেব্রুয়ারী ২০২২
মাহামুদুন নবী
মাগুরা  মহম্মদপুর উপজেলার পাচুড়িয়া গ্রামে কু-প্রস্তাব ও যৌন হয়রানীর প্রতিবাদ করায় এক শিক্ষক ও তার মাকে পিটিয়ে জখমের অভিযোগ উঠেছে স্থানীয় খোকন রায় নামে এক যুবকের বিরুদ্ধে। এমন অভিযোগ করেছেন ভুক্তভোগীরা।
শনিবার (১৩ ফেব্রুয়ারি) বিকালে মাগুরা ২৫০ শয্যা হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।অভিযুক্ত খোকন রায় মহম্মদপুরের ভিটে পাড়া গ্রামের লক্ষীপদ রায়ের ছেলে।
ওই স্কুল শিক্ষকের মা রিপা রানী জানান, তার মেয়ে স্থানীয় একটি মন্দিরের গণশিক্ষা কার্যক্রমের একজন শিক্ষক। দীর্ঘদিন ধরে খোকন রায় স্কুলে আসা যাওয়ার পথে তার নাতনিকে উত্ত্যক্ত করছিলেন। পাশাপশি কুপ্রস্তাবও দিতেন। শনিবার সকালে খোকন রায় তাদের বাড়ির সামনে এসে তার নাতনিকে একইভাবে উত্ত্যক্ত করেন। এ সময় তার মেয়ে ও নাতনি প্রতিবাদ করলে বাঁশ দিয়ে খোকন রায় তাদের পিটিয়ে আহত করেন। এ সময় তাদের চিৎকারে স্থানীয়রা এগিয়ে এলে খোকন রায় পালিয়ে যান। প্রথমে তারা বাড়িতে প্রাথমিক চিকিৎসা নেন। বিকালে বেশি অসুস্থ হয়ে পড়লে পরিবারের অন্যরা তাদের মাগুরা ২৫০ শয্যা হাসপাতালে ভর্তি করে।
নির্যাতিতা স্কুল শিক্ষকের চাচা নিধির বিশ্বাস বলেন, ‘বখাটে যুবক দীর্ঘদিন ধরে আমার ভাতিজিকে উত্ত্যক্ত করছিল। শনিবার বাড়ি এসে মারধর করেছে। আমরা এ ব্যাপারে থানায় অভিযোগ দেব।’
অভিযুক্ত খোকন রায় অভিযোগ অস্বীকার করে বলেন,‘আমি কাউকে মারধর করিনি। বরং মা-মেয়ে মিলে আমাকে মেরেছে। পরে আমাকে ফাঁসানোর জন্য হাসপাতালে ভর্তি হয়েছে।’
মহম্মদপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) নাসির উদ্দিন বলেন, ‘লিখিত অভিযোগ পেলে এ বিষয়ে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’