ঢাকা ১০:০৭ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ০৪ মার্চ ২০২৪, ২১ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ
শিরোনাম :
ফসলি জমির মাটি কেটে বিক্রির অভিযোগ স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতির বিরুদ্ধে বাড্ডা থানার অপরাধীদের আতঙ্কের নাম ওসি ইয়াসীন গাজী কুমিল্লা সাংবাদিক ফোরাম, ঢাকা’র নেতৃত্বে সাজ্জাদ-মোশাররফ স্বামীকে বটি দিয়ে কুপিয়ে খুন করে থানায় স্ত্রীর আত্মসমর্পণ কোটালীপাড়ায় তিন দিনব্যাপী কবি সুকান্ত মেলার উদ্বোধন বেইলি রোডে আগুনে নিহত ৪৬ জয়পুরহাটে ৭ মামলার কুখ্যাত সন্ত্রাসী অস্ত্র ও মাদকসহ র‍্যাবের জালে আটক উপজেলা নির্বাহী অফিসার আজিম উদ্দিনের কোলে শিশু মো. লাকিত হোসেন ধর্ষণ মামলার প্রধান একমাত্র পলাতক আসামি অবশেষে আটক মির্জাগঞ্জে দরিদ্র এক নিঃসন্তান বৃদ্ধের খড়ের গাদায় অগ্নিকাণ্ড

রুপনগর বস্তিবাসিদের বেহালদশা

সোহেল রানা
রাজধানী, মিরপুর রুপনগর ৩১নং রোডের মাথায় বিনা নোটিশে বস্তিভেঙ্গে দেওয়া হয়েছে বলে বস্তি বাসিদের অভিযোগ। সরেজমিনে গিয়ে বস্তি বাসিদের সাথে কথা বললে একাধিক ব্যাক্তি জানান আমরা খুবই অসহায় খেটে খাওয়া দিনমজুর অনেক কষ্ট করে পরিবার ও ছোট ছোট পোলাপান নিয়ে কোন রকম খেয়ে না খেয়ে দিনপার করি। কিন্তু কোন নোটিশ ও মাইকিং ছাড়া হঠাৎ করে জোরপূর্বক প্রসাশনের সহযোগিতায় আমাদের বস্তি ভেঙ্গে দেয় এমতাবস্থায় আমাদের খুবই কষ্টের সাথে দিনযাপন করতে হচ্ছে খোলা আকাশের নিচে। এমন সময় আমাদের অন্য কোথাও রুম ভাড়া নেওয়ার ক্ষমতা নেই এমনকি হঠাৎ করে আমাদের বস্তি ভেঙ্গে দেওয়াই আমাদের কোন মালপত্র নিয়ে আসতে পারি নাই। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক একাধিক ব্যাক্তি সংবাদ কর্মীকে বলেন আওয়ামী লীগের নাম ভাঙ্গিয়ে ৭নং ওর্য়াড কাউন্সিলর তোফাজ্জল হোসেন টেনু ও আওয়ামী লীগের মহিলা নেত্রী সুইটি তাদের দলবল সহ সন্ত্রাসী বাহিনী দিয়ে অনেকবার দখল নেওয়ার চেষ্টা করেছিল কিন্তু ব্যার্থ হওয়াই পরবর্তীতে প্রশাসনের সহযোগিতাই সমস্ত বাড়ি ঘর জোরপূর্বক ভেঙ্গে দেই। আমাদের পরিবার পরিজন নিয়ে তাড়াহুড়ো করে বের হতে গিয়ে বস্তির অনেকেই আহত হয়েছে। অভিযোগ বিষয়ে জানার জন্য ৭নং ওর্য়াড কাউন্সিলর তোফাজ্জল হোসেন টেনুর মোবাইল ফোনে যোগাযোগ করলে প্রতিবেদকে বলেন বস্তির জায়গাটি হাউজিং এর বিক্রি করা সম্পত্তি সেটা অনেক দিন যাবত অবৈধ ভাবে কিছু লোক ভোগদখল করে আসছিল তাই হাউজিং ও প্রসাশনের সহযোগিতায় প্রকৃতপক্ষে যারা মালিক তাদের জায়গা বুঝে নেওয়ার জন্য আইনের মাধ্যমে হাউজিং কতৃপক্ষ বস্তিবাসিদের উচ্ছেদ করেছেন। তাছাড়া ওই জায়গার মালিক আওয়ামীলীগের এমপি আমির হোসেন আমু, বাহাউদ্দিন নাসিম, মোফাজ্জেল হোসেন চৌধুরী মায়া ও প্রধান মন্ত্রীর আত্মীয় সহ মোট ৬ জন। তাই জোর করে না আইনের মাধ্যমে উচ্ছেদ করা হয়েছে। আমি শুধু উপস্থিত থেকে আইনের সহযোগিতা করছি একজন জনপ্রতিনিধি হিসেবে। তিনি আরো বলেন আমার বিষয়ে জায়গা দখলের যে অভিযোগ তা সম্পুর্ণ মিথ্যা ও বানোয়াট আমি কোন জায়গা দখল করতে যায়নি যাদের জায়গা তারা বুঝে নিবেন তাই হাউজিং কর্তৃপক্ষ ও প্রসাশন সেটা করেছে। এখানে আমার কিছু করার নেই আমি যদি ঘর বানিয়ে ভাড়া খাই তখন আপনারা তো দেখবেন। মহিলা আওয়ামী লীগের নেত্রী সুইটির মোবাইল ফোনে যোগাযোগ করলে তিনি প্রতিবেদককে বলেন যাদের জায়গা তারা বুঝে নিয়েছেন আমার কিছু প্রতিপক্ষ আছে তাই আমার নামে মিথ্যা কথা বলে আমাকে সমাজের চোখে খারাপ করতে চাই আমি কেন জায়গা দখল করতে যাবো। এটা যাদের জায়গা তাদের প্রসাশন ও হাউজিং এর বিষয়। তবে ভুক্তভোগী বস্তিবাসিরা জানান হাউজিং দশকাঠা জায়গা নিবে তাহলে আশেপাশে আরো বস্তি ছিল বাকী জায়গা কেন ভাঙ্গা হলো না আর কেনই বা দশ কাঠার বেশী জায়গা দখলে নিল তাহলে বাকী জায়গা কে দখল করলো কার ইশারায় ভাঙ্গা হলো। সুত্রে আরো জানা যায়, মালিকানা জায়গা মালিকদের বুঝিয়ে দিয়ে বাকী জায়গা ৭নং ওর্য়াড কাউন্সিলর ও আওয়ামী লীগের মহিলা নেত্রী ঘর বানিয়ে ভাড়া দিবেন। বস্তিবাসিরা বলেন মাননীয় প্রধান মন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার কাছে আমাদের একটাই দাবী দীর্ঘ ১৬ বছর যাবৎ আমরা এখানে বসবাস করে আসছি তাই দিন শেষে একটু মাথা গুজার জায়গাটা যেন আমরা ফিরে পেতে পারি এটাই বস্তিবাসিদের প্রত্যশা।

ট্যাগস

ফসলি জমির মাটি কেটে বিক্রির অভিযোগ স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতির বিরুদ্ধে

রুপনগর বস্তিবাসিদের বেহালদশা

আপডেট টাইম : ০৩:৫৬:৩০ অপরাহ্ন, সোমবার, ২৩ মে ২০২২

সোহেল রানা
রাজধানী, মিরপুর রুপনগর ৩১নং রোডের মাথায় বিনা নোটিশে বস্তিভেঙ্গে দেওয়া হয়েছে বলে বস্তি বাসিদের অভিযোগ। সরেজমিনে গিয়ে বস্তি বাসিদের সাথে কথা বললে একাধিক ব্যাক্তি জানান আমরা খুবই অসহায় খেটে খাওয়া দিনমজুর অনেক কষ্ট করে পরিবার ও ছোট ছোট পোলাপান নিয়ে কোন রকম খেয়ে না খেয়ে দিনপার করি। কিন্তু কোন নোটিশ ও মাইকিং ছাড়া হঠাৎ করে জোরপূর্বক প্রসাশনের সহযোগিতায় আমাদের বস্তি ভেঙ্গে দেয় এমতাবস্থায় আমাদের খুবই কষ্টের সাথে দিনযাপন করতে হচ্ছে খোলা আকাশের নিচে। এমন সময় আমাদের অন্য কোথাও রুম ভাড়া নেওয়ার ক্ষমতা নেই এমনকি হঠাৎ করে আমাদের বস্তি ভেঙ্গে দেওয়াই আমাদের কোন মালপত্র নিয়ে আসতে পারি নাই। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক একাধিক ব্যাক্তি সংবাদ কর্মীকে বলেন আওয়ামী লীগের নাম ভাঙ্গিয়ে ৭নং ওর্য়াড কাউন্সিলর তোফাজ্জল হোসেন টেনু ও আওয়ামী লীগের মহিলা নেত্রী সুইটি তাদের দলবল সহ সন্ত্রাসী বাহিনী দিয়ে অনেকবার দখল নেওয়ার চেষ্টা করেছিল কিন্তু ব্যার্থ হওয়াই পরবর্তীতে প্রশাসনের সহযোগিতাই সমস্ত বাড়ি ঘর জোরপূর্বক ভেঙ্গে দেই। আমাদের পরিবার পরিজন নিয়ে তাড়াহুড়ো করে বের হতে গিয়ে বস্তির অনেকেই আহত হয়েছে। অভিযোগ বিষয়ে জানার জন্য ৭নং ওর্য়াড কাউন্সিলর তোফাজ্জল হোসেন টেনুর মোবাইল ফোনে যোগাযোগ করলে প্রতিবেদকে বলেন বস্তির জায়গাটি হাউজিং এর বিক্রি করা সম্পত্তি সেটা অনেক দিন যাবত অবৈধ ভাবে কিছু লোক ভোগদখল করে আসছিল তাই হাউজিং ও প্রসাশনের সহযোগিতায় প্রকৃতপক্ষে যারা মালিক তাদের জায়গা বুঝে নেওয়ার জন্য আইনের মাধ্যমে হাউজিং কতৃপক্ষ বস্তিবাসিদের উচ্ছেদ করেছেন। তাছাড়া ওই জায়গার মালিক আওয়ামীলীগের এমপি আমির হোসেন আমু, বাহাউদ্দিন নাসিম, মোফাজ্জেল হোসেন চৌধুরী মায়া ও প্রধান মন্ত্রীর আত্মীয় সহ মোট ৬ জন। তাই জোর করে না আইনের মাধ্যমে উচ্ছেদ করা হয়েছে। আমি শুধু উপস্থিত থেকে আইনের সহযোগিতা করছি একজন জনপ্রতিনিধি হিসেবে। তিনি আরো বলেন আমার বিষয়ে জায়গা দখলের যে অভিযোগ তা সম্পুর্ণ মিথ্যা ও বানোয়াট আমি কোন জায়গা দখল করতে যায়নি যাদের জায়গা তারা বুঝে নিবেন তাই হাউজিং কর্তৃপক্ষ ও প্রসাশন সেটা করেছে। এখানে আমার কিছু করার নেই আমি যদি ঘর বানিয়ে ভাড়া খাই তখন আপনারা তো দেখবেন। মহিলা আওয়ামী লীগের নেত্রী সুইটির মোবাইল ফোনে যোগাযোগ করলে তিনি প্রতিবেদককে বলেন যাদের জায়গা তারা বুঝে নিয়েছেন আমার কিছু প্রতিপক্ষ আছে তাই আমার নামে মিথ্যা কথা বলে আমাকে সমাজের চোখে খারাপ করতে চাই আমি কেন জায়গা দখল করতে যাবো। এটা যাদের জায়গা তাদের প্রসাশন ও হাউজিং এর বিষয়। তবে ভুক্তভোগী বস্তিবাসিরা জানান হাউজিং দশকাঠা জায়গা নিবে তাহলে আশেপাশে আরো বস্তি ছিল বাকী জায়গা কেন ভাঙ্গা হলো না আর কেনই বা দশ কাঠার বেশী জায়গা দখলে নিল তাহলে বাকী জায়গা কে দখল করলো কার ইশারায় ভাঙ্গা হলো। সুত্রে আরো জানা যায়, মালিকানা জায়গা মালিকদের বুঝিয়ে দিয়ে বাকী জায়গা ৭নং ওর্য়াড কাউন্সিলর ও আওয়ামী লীগের মহিলা নেত্রী ঘর বানিয়ে ভাড়া দিবেন। বস্তিবাসিরা বলেন মাননীয় প্রধান মন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার কাছে আমাদের একটাই দাবী দীর্ঘ ১৬ বছর যাবৎ আমরা এখানে বসবাস করে আসছি তাই দিন শেষে একটু মাথা গুজার জায়গাটা যেন আমরা ফিরে পেতে পারি এটাই বস্তিবাসিদের প্রত্যশা।