ঢাকা ০৪:০১ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ১৫ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ
শিরোনাম :
ভূল অসত্য সংবাদ পরিবেশন করায় ব্যবসায়ীর  সংবাদ সম্মেলন কেটালী পাড়ায় দিনে দুপুরে সরকারী কোয়াটারে চুরি জনবান্ধব ভূমি সংস্কারে অগ্রাধিকার দিচ্ছে সরকার: ভূমিমন্ত্রী ভূমি অফিসে যেন কোনো দালাল না থাকে: মন্ত্রী ফায়ার সার্ভিসের স্টেশন অফিসার শাহীন আলম বিলাশবহুল ৮তলা বাড়ীর মালিক! মুক্তিযুদ্ধের চলচ্চিত্র ‘অপারেশন জ্যাকপট’ নিয়ে এতো অনাসৃষ্টি কেন? চকরিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য ও প:প: কর্মকর্তা ডা: শোভন দত্তের বিরুদ্ধে সরকারী টাকা আত্মসাত,বিদেশে টাকা পাচার,অবৈধ সম্পদ অর্জন ও নারী কেলেংকারীর অভিযোগ! দদুকের তদন্ত থাকা কর্মকর্তাকে চুক্তিভিত্তিক ডিজি নিয়োগের তোড়জোড়! গাজীপুর সিটি করপোরেশনের গাড়িচাপায় শ্রমিক নিহত, মহাসড়ক অবরোধ মির্জাগঞ্জে আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা ও  শহীদ  দিবসে বাংলাদেশ সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় শিক্ষক সমিতির শ্রদ্ধা নিবেদন 

সংখ্যালঘুদের জায়গা দখল করে দোকানঘর নির্মান

মাহামুদুন নবী (স্টাফ রিপোর্টার)
মাগুরার মহম্মদপুরে সংখ্যালঘু মুখার্জিদের  জায়গা দখল করে গভীর রাতে বেআইনিভাবে দোকান নির্মাণ করেছে  রব্কিউল নামের এক ব্যাক্তি । উপজেলার বালিদিয়া ইউনিয়নের ঘোষপুর গ্রামের অসহায় বাবু মুখার্জি, পিকুল মুখার্জি ও সমীর মুখার্জির পৈত্রিক সম্পত্তির পাট কেটে জবর দখল করে দোকানঘর নির্মানের অভিযোগ উঠেছে একই গ্রামের মোঃ আনোয়ার মোল্যার ছেলে আওয়ামী লীগ কর্মী প্রভাবশালী রবিউল মোল্যার বিরুদ্ধে।
গত ২৯ জুলাই শুক্রবার দিবাগত গভীর রাতে জমির পাট কেটে এ দোকানঘর নির্মান করেন।
সরেজমিন জানা যায় ,  ঘোষপুর মৌজার সমীর,বাবু ও পিকুল মুখার্জির  পৈত্রিক সূত্রে ২৩ শতক জমি  ভোগদখলে রয়েছে। জমিটি তারা পরিবারের সবাই  চাষ করে। জমিটি  খতিয়ান নং ১৩৩ এবং দাগ নাম্বার ৩৮৪। জমিতে তারা পাট চাষ করেছে। গত শুক্রবার শনিবার সকালে ঘুম থেকে ওঠে দেখে জমির দক্ষিণ পাশে একটি দোকান ঘর নির্মান করা  । পরে খোঁজ খবর নিয়ে জানতে পারি  গভীর রাতে ঘোষপুর গ্রামের আনোয়ার মোল্যার ছেলে রবিউল মোল্যা জমির পাট কেটে দোকানঘরটি নির্মান করেছে।
স্থানীয়রা জানায়, পৈত্রিক সূত্রে দীর্ঘদিন ধরে এ জমিটি বাবু মুখার্জি, পিকুল মুখার্জি ও সমীর মুখার্জিরা ভোগদখল করে আসছে। পাটও চাষ করছে তারা। রবিউল নাম করে একটি ছেলে হঠাৎ  জমির দক্ষিণ পাশে দোকান ঘর তুলেছে।
ভুক্তভোগী সমীর মুখার্জি জানান, আমরা পৈত্রিক সূত্রে জমিটি পেয়েছি। জমি নিয়ে কোন মামলা মোকাদ্দমা নেই।  হঠাৎ রবিউল আমার জমির পাট কেটে দোকান ঘর দিয়েছে।  তিনি আরও বলেন আমরা সংখ্যায় কম তাই এ ভাবে আমাদের জমি দখল করে নিয়ে যাবে। কিছু বলতে গেলে বিভিন্ন ভাবে হুমকি ধামকি দেয়।
এ ব্যাপারে অভিযুক্ত রবিউল  বলেন, আমি বেআইনিভাবে তাদের  জায়গা দখল করেছি। বিষয়টি আমার ভূল হয়ে গেছে। আগামী বুধবারে মধ্যে দোকানঘরটি সরিয়ে নিবো।
মহম্মদপুর থানার ওসি মোঃ আশরাফুল ইসলাম (অঃদাঃ) বলেন, এ ব্যাপারে একটি অভিযোগ পেয়েছি তদন্ত পূর্বক বৈধভাবে দখলদারের বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।
ট্যাগস
জনপ্রিয় সংবাদ

ভূল অসত্য সংবাদ পরিবেশন করায় ব্যবসায়ীর  সংবাদ সম্মেলন

সংখ্যালঘুদের জায়গা দখল করে দোকানঘর নির্মান

আপডেট টাইম : ১২:৩২:২৭ অপরাহ্ন, সোমবার, ১ অগাস্ট ২০২২
মাহামুদুন নবী (স্টাফ রিপোর্টার)
মাগুরার মহম্মদপুরে সংখ্যালঘু মুখার্জিদের  জায়গা দখল করে গভীর রাতে বেআইনিভাবে দোকান নির্মাণ করেছে  রব্কিউল নামের এক ব্যাক্তি । উপজেলার বালিদিয়া ইউনিয়নের ঘোষপুর গ্রামের অসহায় বাবু মুখার্জি, পিকুল মুখার্জি ও সমীর মুখার্জির পৈত্রিক সম্পত্তির পাট কেটে জবর দখল করে দোকানঘর নির্মানের অভিযোগ উঠেছে একই গ্রামের মোঃ আনোয়ার মোল্যার ছেলে আওয়ামী লীগ কর্মী প্রভাবশালী রবিউল মোল্যার বিরুদ্ধে।
গত ২৯ জুলাই শুক্রবার দিবাগত গভীর রাতে জমির পাট কেটে এ দোকানঘর নির্মান করেন।
সরেজমিন জানা যায় ,  ঘোষপুর মৌজার সমীর,বাবু ও পিকুল মুখার্জির  পৈত্রিক সূত্রে ২৩ শতক জমি  ভোগদখলে রয়েছে। জমিটি তারা পরিবারের সবাই  চাষ করে। জমিটি  খতিয়ান নং ১৩৩ এবং দাগ নাম্বার ৩৮৪। জমিতে তারা পাট চাষ করেছে। গত শুক্রবার শনিবার সকালে ঘুম থেকে ওঠে দেখে জমির দক্ষিণ পাশে একটি দোকান ঘর নির্মান করা  । পরে খোঁজ খবর নিয়ে জানতে পারি  গভীর রাতে ঘোষপুর গ্রামের আনোয়ার মোল্যার ছেলে রবিউল মোল্যা জমির পাট কেটে দোকানঘরটি নির্মান করেছে।
স্থানীয়রা জানায়, পৈত্রিক সূত্রে দীর্ঘদিন ধরে এ জমিটি বাবু মুখার্জি, পিকুল মুখার্জি ও সমীর মুখার্জিরা ভোগদখল করে আসছে। পাটও চাষ করছে তারা। রবিউল নাম করে একটি ছেলে হঠাৎ  জমির দক্ষিণ পাশে দোকান ঘর তুলেছে।
ভুক্তভোগী সমীর মুখার্জি জানান, আমরা পৈত্রিক সূত্রে জমিটি পেয়েছি। জমি নিয়ে কোন মামলা মোকাদ্দমা নেই।  হঠাৎ রবিউল আমার জমির পাট কেটে দোকান ঘর দিয়েছে।  তিনি আরও বলেন আমরা সংখ্যায় কম তাই এ ভাবে আমাদের জমি দখল করে নিয়ে যাবে। কিছু বলতে গেলে বিভিন্ন ভাবে হুমকি ধামকি দেয়।
এ ব্যাপারে অভিযুক্ত রবিউল  বলেন, আমি বেআইনিভাবে তাদের  জায়গা দখল করেছি। বিষয়টি আমার ভূল হয়ে গেছে। আগামী বুধবারে মধ্যে দোকানঘরটি সরিয়ে নিবো।
মহম্মদপুর থানার ওসি মোঃ আশরাফুল ইসলাম (অঃদাঃ) বলেন, এ ব্যাপারে একটি অভিযোগ পেয়েছি তদন্ত পূর্বক বৈধভাবে দখলদারের বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।