ঢাকা ০৫:২৭ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ২৩ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ১০ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ
শিরোনাম :
মির্জাগঞ্জে আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা ও  শহীদ  দিবসে বাংলাদেশ সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় শিক্ষক সমিতির শ্রদ্ধা নিবেদন  ৫২’র ভাষা শহীদদের প্রতি মিরপুর রিপোর্টার্স ক্লাবের শ্রদ্ধা নিবেদন প্রাণিসম্পদ অধিদপ্তরকে দুর্নীতির স্বর্গরাজ্যে পরিণত করেছেন ডিজি ডা: মো: এমদাদুল হক তালুকদার! বাসাবো এলাকায় রাজউকের উচ্ছেদ অভিযান; ৪ লক্ষ টাকা জরিমানা দুই সাব-রেজিস্ট্রারের বদলী উপলক্ষে বিদায় সংবর্ধনা দুর্নীতির বিরুদ্ধে শূন্য সহনশীল হবেন দুদক কর্মকর্তারা বলিষ্ঠ নেতৃত্বের মাধ্যমে ভূমি অফিস পরিচালনা করুন: ভূমিমন্ত্রী বাসাবো এলাকায় রাজউকের উচ্ছেদ অভিযান; ৪ লক্ষ টাকা জরিমানা মাগুরায় মাদরাসার সভাপতির ধমকে সুপার অজ্ঞান  মাগুরায় সাকিবের পৃষ্ঠপোষকতায় মহান একুশ উপলক্ষে শহরে আলপনার উদ্যোগ 

বাউফলে উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তা মাহবুবুর রহমানের অনিয়ম দূর্নীতির অভিযোগ

এম.জাফরান হারুন
পটুয়াখালীর বাউফল উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তা মো. মাহবুবুর রহমানের বিরুদ্ধে দুস্থদের মাঝে হাঁস, মুরগি ও ভেড়া বিতরণে ব্যাপক অনিয়ম দূর্নীতির অভিযোগ উঠেছে। গত রবিবার উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) মো. আল-আমিনের কাছে এ ব্যাপারে লিখিত অভিযোগ করেছেন কেশবপুর ইউপি চেয়ারম্যান সালেহ উদ্দিন পিকু। অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রণালয় করোনাকালে কেশবপুর ইউনিয়নের দুস্থ ও অসহায় মানুষদের মাঝে হাঁস, মুরগি ও ভেড়া বরাদ্দ দেয়। এতে সিদ্ধান্ত হয় ইউনিয়ন পরিষদ দুস্থদের তালিকা করবে। কিন্তু উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তার তার প্রতিনিধি মাসুমের মাধ্যমে মনগড়াভাবে ওই তালিকা করেন। এছাড়াও যে সব অসহায় মানুষের নাম ও জাতীয় পরিচয় পত্রের ফটোকপি নেয়া হয়েছে তারাও সাহায্য পায়নি। সাহায্য দেয়া হয়েছে উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তার আত্মীয় স্বজন ও পছন্দের লোকদের। অভিযোগে আরও বলা হয়, চুড়ান্ত তালিকায় ইউপি চেয়ারম্যানের স্বাক্ষর নেয়ার কথা থাকলেও চেয়ারম্যানের স্বাক্ষর ছাড়াই তালিকা চুড়ান্ত করা হয়েছে। এবিষয়ে কেশবপুর ইউপি চেয়ারম্যান সালেহ উদ্দিন পিকু বলেন, মৎস্য কর্মকর্তা মাহবুববের বাড়ি কেশবপুরে। তিনি ভিন্ন মতার্দশের লোক। আমি আওয়ামী লীগের মনোনয়ন নিয়ে চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছে। আমাকে হেয় প্রতিপন্ন করার জন্য উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তা এ ষড়যন্ত্র করেছেন। এবিষয়ে উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তা মো. মাহবুবুর রহমান বলেন, ওই ফাংশন আমার না। কেন অভিযোগ করলো তাও জানি না। এবিষয়ে উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) মো. আল-আমিন বলেন, লিখিত অভিযোগ পেয়েছি। তদন্ত সাপেক্ষে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

ট্যাগস

মির্জাগঞ্জে আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা ও  শহীদ  দিবসে বাংলাদেশ সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় শিক্ষক সমিতির শ্রদ্ধা নিবেদন 

বাউফলে উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তা মাহবুবুর রহমানের অনিয়ম দূর্নীতির অভিযোগ

আপডেট টাইম : ০৪:২৪:২৯ অপরাহ্ন, সোমবার, ২২ অগাস্ট ২০২২

এম.জাফরান হারুন
পটুয়াখালীর বাউফল উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তা মো. মাহবুবুর রহমানের বিরুদ্ধে দুস্থদের মাঝে হাঁস, মুরগি ও ভেড়া বিতরণে ব্যাপক অনিয়ম দূর্নীতির অভিযোগ উঠেছে। গত রবিবার উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) মো. আল-আমিনের কাছে এ ব্যাপারে লিখিত অভিযোগ করেছেন কেশবপুর ইউপি চেয়ারম্যান সালেহ উদ্দিন পিকু। অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রণালয় করোনাকালে কেশবপুর ইউনিয়নের দুস্থ ও অসহায় মানুষদের মাঝে হাঁস, মুরগি ও ভেড়া বরাদ্দ দেয়। এতে সিদ্ধান্ত হয় ইউনিয়ন পরিষদ দুস্থদের তালিকা করবে। কিন্তু উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তার তার প্রতিনিধি মাসুমের মাধ্যমে মনগড়াভাবে ওই তালিকা করেন। এছাড়াও যে সব অসহায় মানুষের নাম ও জাতীয় পরিচয় পত্রের ফটোকপি নেয়া হয়েছে তারাও সাহায্য পায়নি। সাহায্য দেয়া হয়েছে উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তার আত্মীয় স্বজন ও পছন্দের লোকদের। অভিযোগে আরও বলা হয়, চুড়ান্ত তালিকায় ইউপি চেয়ারম্যানের স্বাক্ষর নেয়ার কথা থাকলেও চেয়ারম্যানের স্বাক্ষর ছাড়াই তালিকা চুড়ান্ত করা হয়েছে। এবিষয়ে কেশবপুর ইউপি চেয়ারম্যান সালেহ উদ্দিন পিকু বলেন, মৎস্য কর্মকর্তা মাহবুববের বাড়ি কেশবপুরে। তিনি ভিন্ন মতার্দশের লোক। আমি আওয়ামী লীগের মনোনয়ন নিয়ে চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছে। আমাকে হেয় প্রতিপন্ন করার জন্য উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তা এ ষড়যন্ত্র করেছেন। এবিষয়ে উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তা মো. মাহবুবুর রহমান বলেন, ওই ফাংশন আমার না। কেন অভিযোগ করলো তাও জানি না। এবিষয়ে উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) মো. আল-আমিন বলেন, লিখিত অভিযোগ পেয়েছি। তদন্ত সাপেক্ষে ব্যবস্থা নেয়া হবে।