ঢাকা ০২:৫৭ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ১৫ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ
শিরোনাম :
ভূল অসত্য সংবাদ পরিবেশন করায় ব্যবসায়ীর  সংবাদ সম্মেলন কেটালী পাড়ায় দিনে দুপুরে সরকারী কোয়াটারে চুরি জনবান্ধব ভূমি সংস্কারে অগ্রাধিকার দিচ্ছে সরকার: ভূমিমন্ত্রী ভূমি অফিসে যেন কোনো দালাল না থাকে: মন্ত্রী ফায়ার সার্ভিসের স্টেশন অফিসার শাহীন আলম বিলাশবহুল ৮তলা বাড়ীর মালিক! মুক্তিযুদ্ধের চলচ্চিত্র ‘অপারেশন জ্যাকপট’ নিয়ে এতো অনাসৃষ্টি কেন? চকরিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য ও প:প: কর্মকর্তা ডা: শোভন দত্তের বিরুদ্ধে সরকারী টাকা আত্মসাত,বিদেশে টাকা পাচার,অবৈধ সম্পদ অর্জন ও নারী কেলেংকারীর অভিযোগ! দদুকের তদন্ত থাকা কর্মকর্তাকে চুক্তিভিত্তিক ডিজি নিয়োগের তোড়জোড়! গাজীপুর সিটি করপোরেশনের গাড়িচাপায় শ্রমিক নিহত, মহাসড়ক অবরোধ মির্জাগঞ্জে আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা ও  শহীদ  দিবসে বাংলাদেশ সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় শিক্ষক সমিতির শ্রদ্ধা নিবেদন 

প্রথমবার ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী ঋষি সুনাকের সঙ্গে দেখা করলেন নরেন্দ্র মোদি

অনলাইন  ডেস্ক:

জি-২০ সম্মেলনে যোগ দিতে ইন্দোনেশিয়ায় পৌঁছে গিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। আন্তর্জাতিক মঞ্চে গিয়েই প্রথমবার ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী ঋষি সুনাকের সঙ্গে দেখা করলেন তিনি। ইতিহাস গড়ে ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী পদে বসার পরে এই প্রথম মোদির মুখোমুখি হলেন সুনাক। প্রসঙ্গত, প্রধানমন্ত্রী নির্বাচিত হওয়ার পরে ফোন করে সুনাককে অভিনন্দন জানিয়েছিলেন মোদি। এই প্রথমবার মুখোমুখি সাক্ষাৎ হল দুই রাষ্ট্রনেতার। প্রধানমন্ত্রীর দপ্তরের তরফ থেকে দুই নেতার ছবি টুইট করা হয়েছে।

সোমবার ইন্দোনেশিয়ার বালিতে পৌঁছে গিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী। মঙ্গলবার সম্মেলনের প্রথম দিনে একাধিক রাষ্ট্রনেতার সঙ্গে দেখা করেছেন মোদি। মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন, ফ্রান্সের প্রেসিডেন্ট ইমানুয়েল ম্যাক্রোঁর সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাৎ করেছেন তিনি। সেই রকম ভাবেই সম্মেলনের ফাঁকে ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী ঋষি সুনাকের সঙ্গে দেখা হয়েছে মোদির। প্রধানমন্ত্রীর দপ্তরের তরফে দুই রাষ্ট্রনেতার হাসিমুখের ছবি টুইট করা হয়েছে। সেখানে লেখা হয়েছে, “বালিতে জি-২০ সম্মেলনের প্রথম দিনেই দুই দেশের প্রধানমন্ত্রীর দেখা হল। নরেন্দ্র মোদি ও ঋষি সুনাকের মধ্যে সংক্ষিপ্ত আলোচনা হয়েছে।”

অন্যদিকে, জি-২০ সম্মেলনের ফাঁকেই দ্বিপাক্ষিক বৈঠকে বসতে পারেন মোদি ও বাইডেন। মঙ্গলবারেই এই দ্বিপাক্ষিক বৈঠক হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। প্রসঙ্গত, সোমবারেই চিনা প্রেসিডেন্ট শি জিনপিংয়ের সঙ্গে বৈঠকে বসেছিলেন বাইডেন। বৈঠকের শুরুতে হাতে হাত রেখে হাসিমুখে ছবি তোলেন দুই রাষ্ট্রপ্রধান। সিএনএন সূত্রে খবর, দোভাষীর মাধ্যমে বাইডেনের উদ্দেশে জিনপিং বলেন, “আপনাকে দেখে ভাল লাগল।” পালটা অভিবাদন জানান মার্কিন প্রেসিডেন্ট। এবার প্রশ্ন হচ্ছে, বালির সমুদ্র সৈকতে যে কূটনৈতিক ‘উষ্ণতা’ দেখা গিয়েছে, তাতে কি সম্পর্কের বরফ গলবে?

চিনের আগ্রাসন রুখতে ভারত শক্তিশালী ভূমিকা নিতে পারে, এমন কথা বারবার শোনা গিয়েছে মার্কিন আধিকারিকদের মুখে। এহেন পরিস্থিতিতে চিনের রাষ্ট্রপ্রধানের সঙ্গে বৈঠকের পরের দিনই মোদির সঙ্গে বাইডেনের আলোচনা-স্বভাবতই আন্তর্জাতিক মহলে যথেষ্ট আগ্রহ তৈরি করেছে। তাছাড়াও রাশিয়ার থেকে তেল কেনা প্রসঙ্গেও কীভাবে মার্কিন প্রশ্নের মোকাবিলা করবে ভারত, সেই উত্তরের দিকেও তাকিয়ে রয়েছে ওয়াকিবহাল মহল। ২০২৩ সালে জি-২০ সম্মেলনের সভাপতিত্ব করবে ভারত। সেই প্রসঙ্গে কতখানি সহায়তা করবে আমেরিকা, তা নিয়ে আগ্রহ রয়েছে সদস্য দেশগুলির মধ্যে।

 

জনপ্রিয় সংবাদ

ভূল অসত্য সংবাদ পরিবেশন করায় ব্যবসায়ীর  সংবাদ সম্মেলন

প্রথমবার ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী ঋষি সুনাকের সঙ্গে দেখা করলেন নরেন্দ্র মোদি

আপডেট টাইম : ১০:০৩:১৮ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ১৫ নভেম্বর ২০২২

অনলাইন  ডেস্ক:

জি-২০ সম্মেলনে যোগ দিতে ইন্দোনেশিয়ায় পৌঁছে গিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। আন্তর্জাতিক মঞ্চে গিয়েই প্রথমবার ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী ঋষি সুনাকের সঙ্গে দেখা করলেন তিনি। ইতিহাস গড়ে ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী পদে বসার পরে এই প্রথম মোদির মুখোমুখি হলেন সুনাক। প্রসঙ্গত, প্রধানমন্ত্রী নির্বাচিত হওয়ার পরে ফোন করে সুনাককে অভিনন্দন জানিয়েছিলেন মোদি। এই প্রথমবার মুখোমুখি সাক্ষাৎ হল দুই রাষ্ট্রনেতার। প্রধানমন্ত্রীর দপ্তরের তরফ থেকে দুই নেতার ছবি টুইট করা হয়েছে।

সোমবার ইন্দোনেশিয়ার বালিতে পৌঁছে গিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী। মঙ্গলবার সম্মেলনের প্রথম দিনে একাধিক রাষ্ট্রনেতার সঙ্গে দেখা করেছেন মোদি। মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন, ফ্রান্সের প্রেসিডেন্ট ইমানুয়েল ম্যাক্রোঁর সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাৎ করেছেন তিনি। সেই রকম ভাবেই সম্মেলনের ফাঁকে ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী ঋষি সুনাকের সঙ্গে দেখা হয়েছে মোদির। প্রধানমন্ত্রীর দপ্তরের তরফে দুই রাষ্ট্রনেতার হাসিমুখের ছবি টুইট করা হয়েছে। সেখানে লেখা হয়েছে, “বালিতে জি-২০ সম্মেলনের প্রথম দিনেই দুই দেশের প্রধানমন্ত্রীর দেখা হল। নরেন্দ্র মোদি ও ঋষি সুনাকের মধ্যে সংক্ষিপ্ত আলোচনা হয়েছে।”

অন্যদিকে, জি-২০ সম্মেলনের ফাঁকেই দ্বিপাক্ষিক বৈঠকে বসতে পারেন মোদি ও বাইডেন। মঙ্গলবারেই এই দ্বিপাক্ষিক বৈঠক হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। প্রসঙ্গত, সোমবারেই চিনা প্রেসিডেন্ট শি জিনপিংয়ের সঙ্গে বৈঠকে বসেছিলেন বাইডেন। বৈঠকের শুরুতে হাতে হাত রেখে হাসিমুখে ছবি তোলেন দুই রাষ্ট্রপ্রধান। সিএনএন সূত্রে খবর, দোভাষীর মাধ্যমে বাইডেনের উদ্দেশে জিনপিং বলেন, “আপনাকে দেখে ভাল লাগল।” পালটা অভিবাদন জানান মার্কিন প্রেসিডেন্ট। এবার প্রশ্ন হচ্ছে, বালির সমুদ্র সৈকতে যে কূটনৈতিক ‘উষ্ণতা’ দেখা গিয়েছে, তাতে কি সম্পর্কের বরফ গলবে?

চিনের আগ্রাসন রুখতে ভারত শক্তিশালী ভূমিকা নিতে পারে, এমন কথা বারবার শোনা গিয়েছে মার্কিন আধিকারিকদের মুখে। এহেন পরিস্থিতিতে চিনের রাষ্ট্রপ্রধানের সঙ্গে বৈঠকের পরের দিনই মোদির সঙ্গে বাইডেনের আলোচনা-স্বভাবতই আন্তর্জাতিক মহলে যথেষ্ট আগ্রহ তৈরি করেছে। তাছাড়াও রাশিয়ার থেকে তেল কেনা প্রসঙ্গেও কীভাবে মার্কিন প্রশ্নের মোকাবিলা করবে ভারত, সেই উত্তরের দিকেও তাকিয়ে রয়েছে ওয়াকিবহাল মহল। ২০২৩ সালে জি-২০ সম্মেলনের সভাপতিত্ব করবে ভারত। সেই প্রসঙ্গে কতখানি সহায়তা করবে আমেরিকা, তা নিয়ে আগ্রহ রয়েছে সদস্য দেশগুলির মধ্যে।