ঢাকা ১০:৪০ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ১৪ এপ্রিল ২০২৪, ১ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

শাহজালাল বিমানবন্দর থেকে ১৪ কেজি স্বর্ণ উদ্ধার

স্টাফ রিপোর্টার
হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে বেসরকারি বিমান সংস্থা ইউএস বাংলা এয়ারলাইন্সের একটি র্যাম বাস থেকে লুকায়িত অবস্থায় প্রায় ১৪ কেজির বেশি স্বর্ণ উদ্ধার করা হয়েছে। যার আনুমানিক বাজার মূল্য সাড়ে ১৩ কোটি টাকা। বৃহস্পতিবার (২ ফেব্রুয়ারি) ঢাকা কাস্টম হাউসের একটি টিম অভিযান চালিয়ে এই স্বর্ণ গুলো উদ্ধার করেন। ঢাকা কাস্টম হাউসের কর্মকর্তা শফিকুল ইসলাম শফিক এই তথ্য নিশ্চিত করেছেন।
তিনি জানিয়েছেন, বৃহষ্পতিবার সকালে দুবাই থেকে ঢাকাগামী ইউএস-বাংলা এয়ারলাইনসের (বিএস ৩৪২ ফ্লাইট) একটি ফ্লাইটে সোনা চোরাচালানের গোপন তথ্য পায় ঢাকা কাস্টম হাউসের কর্মকর্তারা। ওই সোনা ইউএস বাংলা এয়ারলাইন্সের মালিকানাধীন বিমান হতে আগমনী টার্মিনালে যাত্রী পরিবহনের র্যাম বাস বা কারের মাধ্যমে বের করে নেয়া হবে। এই সংবাদের ভিত্তিতে হাউসের কর্মকর্তা-কর্মচারীদের সমন্বয়ে একটি টিম গঠন করা হয়। ওই টিম হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের ২১ নং গেইট ও এপ্রোন এলাকায় সর্তক অবস্থান নেন। সকাল ৭টা ৫৪ মিনিটে দুবাই থেকে বিএস ৩৪২ হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে অবতরণ করে। পরে ইউএস বাংলা এয়ারলাইন্সের একটি র্যাম বাস ও কার হতে যাত্রীরা বিমানবন্দরে নেমে যায়। গোপন তথ্য অনুযায়ী, কাস্টমস টিম একটি র্যাম বাসে (ঢাকা মেট্রো-স-১২-০১১৩) তল্লাশি চালায়। বাস চালক মো. হারুনুর রশিদকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হলে তিনি বাসে সোনা লুকায়িত থাকার বিষয়টি স্বীকার করেন। পরে বাস থেকে লুকায়িত অবস্থায় চারটি প্যাকেট উদ্ধার করা হয়। চারটি প্যাকেট বিমানবন্দরের ব্যাগেজ কাউন্টারে এনে খোলা হলে এতে ১২০টি স্বর্ণবার পাওয়া যায়। যার ওজন ১৩ কেজি ৯৯০ গ্রাম। আনুমানিক বাজার মূল্য ১৩ কোটি ৫০ লাখ টাকা।
কর্মকর্তারা আরো জানিয়েছেন, সোনা উদ্ধার করার সময় ওই বাসে কোন যাত্রী ছিলেন না। প্রাথমিকভাবে প্রতীয়মান হয় যে, গাড়ি চালক কোন সংঘবদ্ধ চোরাচালান চক্রের সঙ্গে যোগসাজসের মাধ্যমে স্বর্ণবারগুলো চোরাচালানের চেষ্টা করেছেন। চালককে আটক করা হয়েছে। বাসটি সিভিল এভিয়েশন অথরিটির জিম্মায় দেয়া হয়েছে। স্বর্ণবারগুলো বিমানবন্দরের মূল্যবান শুল্ক গুদামে জমা দেয়া হয়েছে। এই বিষয়ে কাস্টমস আইন অনুযায়ী মামলা প্রক্রিয়াধীন রয়েছে বলে জানিয়েছেন কর্মকর্তারা।

ট্যাগস

শাহজালাল বিমানবন্দর থেকে ১৪ কেজি স্বর্ণ উদ্ধার

আপডেট টাইম : ০৪:৩০:৩১ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২ ফেব্রুয়ারী ২০২৩

স্টাফ রিপোর্টার
হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে বেসরকারি বিমান সংস্থা ইউএস বাংলা এয়ারলাইন্সের একটি র্যাম বাস থেকে লুকায়িত অবস্থায় প্রায় ১৪ কেজির বেশি স্বর্ণ উদ্ধার করা হয়েছে। যার আনুমানিক বাজার মূল্য সাড়ে ১৩ কোটি টাকা। বৃহস্পতিবার (২ ফেব্রুয়ারি) ঢাকা কাস্টম হাউসের একটি টিম অভিযান চালিয়ে এই স্বর্ণ গুলো উদ্ধার করেন। ঢাকা কাস্টম হাউসের কর্মকর্তা শফিকুল ইসলাম শফিক এই তথ্য নিশ্চিত করেছেন।
তিনি জানিয়েছেন, বৃহষ্পতিবার সকালে দুবাই থেকে ঢাকাগামী ইউএস-বাংলা এয়ারলাইনসের (বিএস ৩৪২ ফ্লাইট) একটি ফ্লাইটে সোনা চোরাচালানের গোপন তথ্য পায় ঢাকা কাস্টম হাউসের কর্মকর্তারা। ওই সোনা ইউএস বাংলা এয়ারলাইন্সের মালিকানাধীন বিমান হতে আগমনী টার্মিনালে যাত্রী পরিবহনের র্যাম বাস বা কারের মাধ্যমে বের করে নেয়া হবে। এই সংবাদের ভিত্তিতে হাউসের কর্মকর্তা-কর্মচারীদের সমন্বয়ে একটি টিম গঠন করা হয়। ওই টিম হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের ২১ নং গেইট ও এপ্রোন এলাকায় সর্তক অবস্থান নেন। সকাল ৭টা ৫৪ মিনিটে দুবাই থেকে বিএস ৩৪২ হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে অবতরণ করে। পরে ইউএস বাংলা এয়ারলাইন্সের একটি র্যাম বাস ও কার হতে যাত্রীরা বিমানবন্দরে নেমে যায়। গোপন তথ্য অনুযায়ী, কাস্টমস টিম একটি র্যাম বাসে (ঢাকা মেট্রো-স-১২-০১১৩) তল্লাশি চালায়। বাস চালক মো. হারুনুর রশিদকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হলে তিনি বাসে সোনা লুকায়িত থাকার বিষয়টি স্বীকার করেন। পরে বাস থেকে লুকায়িত অবস্থায় চারটি প্যাকেট উদ্ধার করা হয়। চারটি প্যাকেট বিমানবন্দরের ব্যাগেজ কাউন্টারে এনে খোলা হলে এতে ১২০টি স্বর্ণবার পাওয়া যায়। যার ওজন ১৩ কেজি ৯৯০ গ্রাম। আনুমানিক বাজার মূল্য ১৩ কোটি ৫০ লাখ টাকা।
কর্মকর্তারা আরো জানিয়েছেন, সোনা উদ্ধার করার সময় ওই বাসে কোন যাত্রী ছিলেন না। প্রাথমিকভাবে প্রতীয়মান হয় যে, গাড়ি চালক কোন সংঘবদ্ধ চোরাচালান চক্রের সঙ্গে যোগসাজসের মাধ্যমে স্বর্ণবারগুলো চোরাচালানের চেষ্টা করেছেন। চালককে আটক করা হয়েছে। বাসটি সিভিল এভিয়েশন অথরিটির জিম্মায় দেয়া হয়েছে। স্বর্ণবারগুলো বিমানবন্দরের মূল্যবান শুল্ক গুদামে জমা দেয়া হয়েছে। এই বিষয়ে কাস্টমস আইন অনুযায়ী মামলা প্রক্রিয়াধীন রয়েছে বলে জানিয়েছেন কর্মকর্তারা।