ঢাকা ০১:০৬ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ১২ এপ্রিল ২০২৪, ২৮ চৈত্র ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

গাছের সাথে এ কেমন শত্রুতা 

মাহামুদুন নবী (মাগুরা)  :
মাগুরা মহম্মদপুরের চরজাঙ্গালীয়া এলাকায় কহিনুর বেগম  নামের এক নারীর ২ শত ধরন্ত কলাগাছ কেটে দিয়েছে  প্রতিপক্ষের লোকজন।  মঙ্গলবার সকালে   এ ঘটনা ঘটেছে বলে জানা যায়।
কহিনুর বেগম এক  হতদরিদ্র নারী এবং হাফিজুর রহমান নামের একজন রিকশা চালকের স্ত্রী ।
এ ব্যাপারে ক্ষতিগ্রস্ত  কহিনুর বেগম জানান, তার স্বামীর পৈতৃক সম্পত্তির উপর তিনি কলাগাছ লাগিয়েছিলেন অথচ পূর্ব শত্রুতার জের ধরে ঘটনারদিন মঙ্গলবার সকালে  মান্নান ও তার লোকজন অতর্কিতভাবে তার আনুমানিক ২০০ ধরন্ত কলাগাছ কেটে ফেলে এ সময় তিনি বাঁধা দিতে গেলে তাকে মারধর করতে যায়। পরে তিনি  উপায়ন্তর না পেয়ে পুলিশের নিকট লিখিত অভিযোগ করেন।
মান্নান ও তার লোকজন অনুপস্থিত থাকায় তাদের বক্তব্য নেয়া সম্ভব হয়নি।
অভিযুক্ত   মান্নানসহ ৭ জনের বিরুদ্ধে  মহম্মদপুর থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন কহিনুর বেগম।
মান্নান শেখ  চর জাঙ্গালীয়া এলাকার মৃত গোলাম সরোয়ার শেখের ছেলে।
মহম্মদপুর থানার অফিসার ইনচার্জ ( ওসি) অসিত কুমার রায় বলেন, অভিযোগ পেয়েছি আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।
ট্যাগস

গাছের সাথে এ কেমন শত্রুতা 

আপডেট টাইম : ০৫:২৫:২৮ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৬ মার্চ ২০২৩
মাহামুদুন নবী (মাগুরা)  :
মাগুরা মহম্মদপুরের চরজাঙ্গালীয়া এলাকায় কহিনুর বেগম  নামের এক নারীর ২ শত ধরন্ত কলাগাছ কেটে দিয়েছে  প্রতিপক্ষের লোকজন।  মঙ্গলবার সকালে   এ ঘটনা ঘটেছে বলে জানা যায়।
কহিনুর বেগম এক  হতদরিদ্র নারী এবং হাফিজুর রহমান নামের একজন রিকশা চালকের স্ত্রী ।
এ ব্যাপারে ক্ষতিগ্রস্ত  কহিনুর বেগম জানান, তার স্বামীর পৈতৃক সম্পত্তির উপর তিনি কলাগাছ লাগিয়েছিলেন অথচ পূর্ব শত্রুতার জের ধরে ঘটনারদিন মঙ্গলবার সকালে  মান্নান ও তার লোকজন অতর্কিতভাবে তার আনুমানিক ২০০ ধরন্ত কলাগাছ কেটে ফেলে এ সময় তিনি বাঁধা দিতে গেলে তাকে মারধর করতে যায়। পরে তিনি  উপায়ন্তর না পেয়ে পুলিশের নিকট লিখিত অভিযোগ করেন।
মান্নান ও তার লোকজন অনুপস্থিত থাকায় তাদের বক্তব্য নেয়া সম্ভব হয়নি।
অভিযুক্ত   মান্নানসহ ৭ জনের বিরুদ্ধে  মহম্মদপুর থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন কহিনুর বেগম।
মান্নান শেখ  চর জাঙ্গালীয়া এলাকার মৃত গোলাম সরোয়ার শেখের ছেলে।
মহম্মদপুর থানার অফিসার ইনচার্জ ( ওসি) অসিত কুমার রায় বলেন, অভিযোগ পেয়েছি আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।