ঢাকা ০৯:৩৮ অপরাহ্ন, সোমবার, ২৪ জুন ২০২৪, ১০ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
শিরোনাম :
আদমদীঘিতে শিশু ধর্ষণ চেষ্টার অভিযোগ: গ্রেফতার-১ মহম্মদপুরে হত্যার মামলার আসামি জামিনে এসে বাদিকে মামলা তুলে নেয়ার হুমকি, পরে মারধর আ.লীগ নেতার হুমকিতে নিরাপত্তাহীনতায় আইসক্রিম ফাক্টরি মালিক কালিহাতীতে লিঙ্গ কাটার অভিযোগ স্ত্রী’র বিরুদ্ধে ফিটনেস বিহীন নৌযানে সয়লাব সদরঘাট,নেই পর্যাপ্ত দক্ষ নাবিক! ৫০ কোটি টাকার মামলা থেকে বাঁচতে প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তার পাল্টা মামলা! ফরিদপুরে সংঘবদ্ধ ধর্ষণের ঘটনায় তোলপাড় রশুনিয়া উচ্চ বিদ্যালয়ের পরিচালনা পর্ষদের নব সভাপতি হলেন আবু সাঈদ মির্জাগঞ্জে আমর্ড পুলিশ ব্যাটালিয়ন (এপিবিএন) উদ্যোগে ত্রাণসামগ্রী বিতরণ মাগুরার হৃদয়পুরে ফসলি জমির টপসয়েল মাটিকাটার অভিযোগ, ইউএনওর হস্তক্ষেপে কাজ বন্ধ

জাতির পিতার ছবি অবমাননাকারী পেলেন জাতীয় শুদ্ধাচার পুরস্কার!

স্টাফ রিপোর্টার :

জাতির পিতার ছবি ও জাতীয় শ্লোগান জয়বাংলা‘র অবমাননাকারীকে জাতীয় শুদ্ধাচার পুরস্কার প্রদান করায় নিন্দার ঝড় উঠেছে বিসিক ভবনে। ছবিতে দেখা যাচ্ছে বিসিক চেয়ারম্যান এর হাত থেকে শুদ্ধাচার পুরস্কার ২০২৩ গ্রহণ করছেন সরোয়ার হোসেন যিনি বিসিক ভবনের নীচতলায় জাতীয় স্লোগান জয়বাংলা এবং জাতির পিতার স্মরণে বঙ্গবন্ধুর ছবি সম্বলিত ব্যানার ভাংচুর এ নেতৃত্ব প্রদান করেছেন। এমন একজন রাজাকারমনা ব্যাক্তিতে বিসিকের জাতীয় শুদ্ধাচার পুরস্কার প্রদান করায় প্রমানিত হয় যে, বিসিকে যে যত বেশী খারাপ কাজ করে সে ততো বেশি শুদ্ধাচার পুরষ্কারসহ অন্যান্য সুযোগ সুবিধা পায়।

দ্বিতীয় ছবিতে দেখা যাচ্ছে জয়বাংলা, জয় বঙ্গবন্ধু খচিত ব্যানার মাটিতে পড়ে আছে, তা পায়ে মাড়াচ্ছেন বিসিকের শৃংখলা শাখার উপ-ব্যবস্থাপক আসিফ উল হাসান এবং কর্মী ব্যবস্থাপনা কর্মকর্তা মোঃ আরিফ হোসেন। নেতৃত্ব নিচ্ছেন কর্মকর্তা সমিতির ২নং সহ-সভাপতি সরোয়ার হোসেন। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেইসবুকে ১২ সেপ্টেম্বর ২০২৩ তারিখে বিসিক জনসংযোগ শাখা কর্তৃক প্রচারিত প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে উল্লেখ করা হয়েছে “সোনার বাংলা গড়ার প্রত্যয়ে জাতীয় শুদ্ধাচার পুরস্কার প্রদান। অদ্য ১২ সেপ্টেম্বর, ২০২৩ খ্রি. বাংলাদেশ ক্ষুদ্র ও কুটির শিল্প করপোরেশন (বিসিক) ২০১৩-২০১৪ অর্থ বছরের জাতীয় শুদ্ধাচার কৌশল কর্মপরিকল্পনা বাস্তবায়ন সুশাসন প্রতিষ্ঠায় অংশীজনের অংশ ২০২২-২০২৩ অর্থ বছরের জাতীয় শুদ্ধাচার পুরস্কার প্রাপ্তদের পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়।

বিসিক কর্তৃপক্ষের হঠকারী সিদ্ধান্তে ২০২৩-২৪ অর্থ বছরের শুদ্ধাচার পুরস্কারে ভূষিত হয়েছেন জাতির পিতা বঙ্গবন্ধুর ছবি ও জাতীয় শ্লোগান জয়বাংলার অবমাননাকারী ব্যক্তি সরোয়ার হোসেন। এই সারোয়ার হোসেনই গত ০৩-০৮-২০২৩ তারিখে বিসিক ভবনে কর্মচারী ইউনিয়ন নেতৃবৃন্দকে মারার জন্য লাঠি আমদানীর জনক। লাঠিয়াল বাহিনীর প্রধান সরোয়ার হোসেনকে শুদ্ধাচার পুরস্কারে ভূষিত করার মাধ্যমে বিসিক কর্তৃপক্ষ শুদ্ধাচারের সরকার নির্দেশিত মানদন্ড অনুযায়ী সংজ্ঞাটির সাথে সাংঘর্ষিক অবস্থান তৈরী করে ফেলেছেন।

মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের জারীকৃত নির্দেশনামতে সকল দপ্তর/সংস্থা মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ কর্তৃক প্রণীত নির্দেশিকা অনুস্মরণ পূর্বক স্ব,স্ব কার্যালয়ের শুদ্ধাচার কৌশল কর্ম পরিকল্পনা প্রদান বাস্তবায়ন করবে এবং আওতাধীন আঞ্চলিক ও মাঠ পর্যায়ের কার্যালয় সমূহের জন্য শুদ্ধাচার কৌশল কর্ম-পরিকল্পনা প্রণয়ন বাস্তবায়ন ও মূল্যায়নের নির্দেশনা ও প্রয়োজনীয় সহায়তা প্রদান করবে। দপ্তর/সংস্থাসমূহ এই নির্দেশিকা অনুস্মরণ করে কর্ম-পরিকল্পনায় অন্তর্ভুক্ত কার্যক্রমসমূহ বাস্তবায়ন করার বিধান চালু থাকা স্বত্তেও বিসিক কর্তৃপক্ষ তার ব্যত্যয় ঘটিয়ে একজন অনাচারী ব্যক্তিকে শুদ্ধাচার পুরস্কার প্রদান করে প্রচলিত রেওয়াজ এবং মন্ত্রি পরিষদ বিভাগের নির্দেশনা লংঘন করেছেন। বিষয়টি জাতীয় স্বার্থে বিষয়টি খতিয়ে দেখার দাবী তুলেছেন বিসিকের দেশ প্রেমিক কর্মকর্তা ও কর্মচারিবৃন্দ।

ট্যাগস
জনপ্রিয় সংবাদ

আদমদীঘিতে শিশু ধর্ষণ চেষ্টার অভিযোগ: গ্রেফতার-১

জাতির পিতার ছবি অবমাননাকারী পেলেন জাতীয় শুদ্ধাচার পুরস্কার!

আপডেট টাইম : ০৫:২৯:২৩ অপরাহ্ন, সোমবার, ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২৩

স্টাফ রিপোর্টার :

জাতির পিতার ছবি ও জাতীয় শ্লোগান জয়বাংলা‘র অবমাননাকারীকে জাতীয় শুদ্ধাচার পুরস্কার প্রদান করায় নিন্দার ঝড় উঠেছে বিসিক ভবনে। ছবিতে দেখা যাচ্ছে বিসিক চেয়ারম্যান এর হাত থেকে শুদ্ধাচার পুরস্কার ২০২৩ গ্রহণ করছেন সরোয়ার হোসেন যিনি বিসিক ভবনের নীচতলায় জাতীয় স্লোগান জয়বাংলা এবং জাতির পিতার স্মরণে বঙ্গবন্ধুর ছবি সম্বলিত ব্যানার ভাংচুর এ নেতৃত্ব প্রদান করেছেন। এমন একজন রাজাকারমনা ব্যাক্তিতে বিসিকের জাতীয় শুদ্ধাচার পুরস্কার প্রদান করায় প্রমানিত হয় যে, বিসিকে যে যত বেশী খারাপ কাজ করে সে ততো বেশি শুদ্ধাচার পুরষ্কারসহ অন্যান্য সুযোগ সুবিধা পায়।

দ্বিতীয় ছবিতে দেখা যাচ্ছে জয়বাংলা, জয় বঙ্গবন্ধু খচিত ব্যানার মাটিতে পড়ে আছে, তা পায়ে মাড়াচ্ছেন বিসিকের শৃংখলা শাখার উপ-ব্যবস্থাপক আসিফ উল হাসান এবং কর্মী ব্যবস্থাপনা কর্মকর্তা মোঃ আরিফ হোসেন। নেতৃত্ব নিচ্ছেন কর্মকর্তা সমিতির ২নং সহ-সভাপতি সরোয়ার হোসেন। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেইসবুকে ১২ সেপ্টেম্বর ২০২৩ তারিখে বিসিক জনসংযোগ শাখা কর্তৃক প্রচারিত প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে উল্লেখ করা হয়েছে “সোনার বাংলা গড়ার প্রত্যয়ে জাতীয় শুদ্ধাচার পুরস্কার প্রদান। অদ্য ১২ সেপ্টেম্বর, ২০২৩ খ্রি. বাংলাদেশ ক্ষুদ্র ও কুটির শিল্প করপোরেশন (বিসিক) ২০১৩-২০১৪ অর্থ বছরের জাতীয় শুদ্ধাচার কৌশল কর্মপরিকল্পনা বাস্তবায়ন সুশাসন প্রতিষ্ঠায় অংশীজনের অংশ ২০২২-২০২৩ অর্থ বছরের জাতীয় শুদ্ধাচার পুরস্কার প্রাপ্তদের পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়।

বিসিক কর্তৃপক্ষের হঠকারী সিদ্ধান্তে ২০২৩-২৪ অর্থ বছরের শুদ্ধাচার পুরস্কারে ভূষিত হয়েছেন জাতির পিতা বঙ্গবন্ধুর ছবি ও জাতীয় শ্লোগান জয়বাংলার অবমাননাকারী ব্যক্তি সরোয়ার হোসেন। এই সারোয়ার হোসেনই গত ০৩-০৮-২০২৩ তারিখে বিসিক ভবনে কর্মচারী ইউনিয়ন নেতৃবৃন্দকে মারার জন্য লাঠি আমদানীর জনক। লাঠিয়াল বাহিনীর প্রধান সরোয়ার হোসেনকে শুদ্ধাচার পুরস্কারে ভূষিত করার মাধ্যমে বিসিক কর্তৃপক্ষ শুদ্ধাচারের সরকার নির্দেশিত মানদন্ড অনুযায়ী সংজ্ঞাটির সাথে সাংঘর্ষিক অবস্থান তৈরী করে ফেলেছেন।

মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের জারীকৃত নির্দেশনামতে সকল দপ্তর/সংস্থা মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ কর্তৃক প্রণীত নির্দেশিকা অনুস্মরণ পূর্বক স্ব,স্ব কার্যালয়ের শুদ্ধাচার কৌশল কর্ম পরিকল্পনা প্রদান বাস্তবায়ন করবে এবং আওতাধীন আঞ্চলিক ও মাঠ পর্যায়ের কার্যালয় সমূহের জন্য শুদ্ধাচার কৌশল কর্ম-পরিকল্পনা প্রণয়ন বাস্তবায়ন ও মূল্যায়নের নির্দেশনা ও প্রয়োজনীয় সহায়তা প্রদান করবে। দপ্তর/সংস্থাসমূহ এই নির্দেশিকা অনুস্মরণ করে কর্ম-পরিকল্পনায় অন্তর্ভুক্ত কার্যক্রমসমূহ বাস্তবায়ন করার বিধান চালু থাকা স্বত্তেও বিসিক কর্তৃপক্ষ তার ব্যত্যয় ঘটিয়ে একজন অনাচারী ব্যক্তিকে শুদ্ধাচার পুরস্কার প্রদান করে প্রচলিত রেওয়াজ এবং মন্ত্রি পরিষদ বিভাগের নির্দেশনা লংঘন করেছেন। বিষয়টি জাতীয় স্বার্থে বিষয়টি খতিয়ে দেখার দাবী তুলেছেন বিসিকের দেশ প্রেমিক কর্মকর্তা ও কর্মচারিবৃন্দ।