ঢাকা ০৩:০৭ অপরাহ্ন, বুধবার, ২৯ মে ২০২৪, ১৫ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
শিরোনাম :
দ্বাদশ জাতীয় সংসদের পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক সম্পর্কিত স্থায়ী কমিটির তৃতীয় বৈঠক অনুষ্ঠিত ৫ বছরের অধিক প্রেষনে দায়িত্ব পালন করছেন চীফ ইঞ্জিনিয়ার মঞ্জুরুল কবীর! বিআইডব্লিউটিএর অতি: পরিচালক আরিফ উদ্দিনের সম্পদের পাহাড়! শাহআলীতে গৃহবধূকে গলা কেটে হত্যাকারি পলাতক স্বামী গ্রেফতার  অতি:পরিচালক আরিফ উদ্দিন এখন বিআইডব্লিউটিএ‘র অঘোষিত “রাজা”! সাভারে এক ইউপি চেয়ারম্যানের সম্পদের পাহাড়! সিরাজদিখানে মঈনুল হাসান নাহিদকে বিকল্প ধরার সমর্থন মির্জাগঞ্জের ইউ,পি সচিব পরকীয়া প্রেমিকার হত্যাকাণ্ডে পুলিশ হেফাজতে শেষ মুহূর্তের প্রচারণায় মানুষের ভালবাসায় আমি মুগ্ধ: চেয়ারম্যান প্রার্থী পলাশ মানবতার আড়ালে ভয়ংকর ফয়সাল বাহিনী, পিস্তল ঠেকিয়ে টাকা হাতিয়ে নেওয়ার অভিযোগ

খাজা টাওয়ারে লাইট জ্বালিয়ে আটকে পড়াদের আকুতি, এক নারীর মৃত্যু

নিজস্ব প্রতিবেদক :

রাজধানীর মহাখালীর লাগা আগুন নিয়ন্ত্রণে কাজ করছে ফায়ার সার্ভিসের ১১টি ইউনিট। এখন পর্যন্ত ভবন থেকে ৭ জনকে জীবিত উদ্ধার করেছে ফায়ার সার্ভিস।

এদিকে অগ্নিকাণ্ডের সময় আতঙ্কিত এক নারী নবম তলার বারান্দা থেকে লাফিয়ে পড়ে মারা গেছেন বলে জানা গেছে। এছাড়া ওপর থেকে দড়ি বেয়ে নামতে গিয়ে ও মাথায় কাচ পড়ে আহত হয়েছেন কয়েকজন। পাশাপাশি অগ্নিকাণ্ড থেকে সৃষ্ট ধোঁয়ায় অসুস্থ হয়েছেন অনেকেই।

জানা গেছে, মৃত নারীর নাম- হাসনা হেনা (২৭)। ভবন থেকে তার বেয়ে নামতে গিয়ে ৯ তলা থেকে পড়ে মারা গেছেন। তিনি খাজা টাওয়ারে রেস অনলাইন নামক একটি প্রতিষ্ঠানে কাজ করতেন।

মহাখালীর মেট্রোপলিটন হাসপাতালের তথ্যকেন্দ্রের কর্মী মো. আরিফুল গণমাধ্যমকে জানান, তাদের হাসপাতালে একজন নারীকে মৃত অবস্থায় আনা হয়েছে। তার বয়স ত্রিশের মতো হতে পারে।

১৪ তলা বিশিষ্ট খাজা টাওয়ারে ব্যাংক, তথ্যপ্রযুক্তি প্রতিষ্ঠানসহ কয়েকটি বেসরকারি প্রতিষ্ঠানের অফিস রয়েছে। ভবনের নবম ও দশম তলা মিলিয়ে রেস অনলাইনের কার্যালয়, সার্ভার রুম।

রেস অনলাইনের একজন কর্মী জানান, তাদের একজন নারী সহকর্মী পেছন দিকের বারান্দা থেকে তার ধরে নামার সময় পড়ে গেছেন বলে তারা শুনেছেন।

পবন সাহা নামের এক দোকানকর্মী বলেন, অগ্নিকাণ্ডের কিছুক্ষণ পর সাড়ে ৫টার দিকে ভবনের ১১ বা ১২ তলা থেকে তার ধরে নামার চেষ্টা করছিলেন কয়েকজন। এসময় বোরকা পরিহিতা একজন নারী নামতে গিয়ে প্রথমে এসির ওপর পড়েন, তারপর নিচে পড়ে যান। নিচে ভিড়ের মধ্যে থেকে একজন ওই নারীকে ধরার চেষ্টা করেছিলেন। ওই নারী তার ওপর পড়লে তিনিও আহত হন। পরে দুইজনকেই হাসপাতালে পাঠানো হয়।

এদিকে অনেকেই ভবনের বিভিন্ন ফ্লোরের বারান্দায় দাঁড়িয়ে মোবাইলের লাইট জ্বালিয়ে বাঁচার আকুতি জানাচ্ছেন। তারা ভবনটিতে আটকে পড়েছেন। তারা ওপর থেকে ফায়ার সার্ভিসের কর্মীদের বার বার আকুতি জানাচ্ছেন তাদের নামিয়ে আনতে। তাদের মধ্যে অনেকের শ্বাসকষ্ট হচ্ছে বলে ইশারায় জানাচ্ছেন।

সর্বশেষ তথ্য অনুযায়ী, ফায়ার সার্ভিস টিটিএলের সাহায্যে খাজা টাওয়ারের বিভিন্ন ফ্লোরের বাইরের গ্লাস ভাঙছে। একইসঙ্গে কোনো ফ্লোরে আগুন ও মানুষ আছে কি না তা দেখছেন ফায়ার ফাইটাররা।

ফায়ার সার্ভিসের নিয়ন্ত্রণ কক্ষের ডিউটি অফিসার রাফি আল ফারুক বলেন, খাজা টাওয়ারের আগুন নিয়ন্ত্রণে আমাদের ১১টি ইউনিট কাজ করছে। ঘটনাস্থলে দুটি লেডার সংবলিত অগ্নিনির্বাপণ ও উদ্ধারকাজের গাড়ি টিটিএল নেওয়া হয়েছে। টিটিএল দিয়ে টাওয়ারের বিভিন্ন ফ্লোরের গ্লাস ভাঙা হচ্ছে।

বৃহস্পতিবার বিকেল ৫টার দিকে মহাখালীর আমতলী মোড়ের কাছের খাজা টাওয়ারে আগুন লাগে। এর কিছুক্ষণ পর থেকেই আগুন নেভানোর কাজ শুরু করে ফায়ার সার্ভিস। পরে তাদের সঙ্গে যোগ দেয় সেনা নৌ ও বিমান বাহিনীর একটি সমন্বিত দলও। শেষ খবর পর্যন্ত আগুন এখনো নিয়ন্ত্রণে আসেনি।

ট্যাগস
জনপ্রিয় সংবাদ

দ্বাদশ জাতীয় সংসদের পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক সম্পর্কিত স্থায়ী কমিটির তৃতীয় বৈঠক অনুষ্ঠিত

খাজা টাওয়ারে লাইট জ্বালিয়ে আটকে পড়াদের আকুতি, এক নারীর মৃত্যু

আপডেট টাইম : ০৬:২০:১৯ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২৬ অক্টোবর ২০২৩
নিজস্ব প্রতিবেদক :

রাজধানীর মহাখালীর লাগা আগুন নিয়ন্ত্রণে কাজ করছে ফায়ার সার্ভিসের ১১টি ইউনিট। এখন পর্যন্ত ভবন থেকে ৭ জনকে জীবিত উদ্ধার করেছে ফায়ার সার্ভিস।

এদিকে অগ্নিকাণ্ডের সময় আতঙ্কিত এক নারী নবম তলার বারান্দা থেকে লাফিয়ে পড়ে মারা গেছেন বলে জানা গেছে। এছাড়া ওপর থেকে দড়ি বেয়ে নামতে গিয়ে ও মাথায় কাচ পড়ে আহত হয়েছেন কয়েকজন। পাশাপাশি অগ্নিকাণ্ড থেকে সৃষ্ট ধোঁয়ায় অসুস্থ হয়েছেন অনেকেই।

জানা গেছে, মৃত নারীর নাম- হাসনা হেনা (২৭)। ভবন থেকে তার বেয়ে নামতে গিয়ে ৯ তলা থেকে পড়ে মারা গেছেন। তিনি খাজা টাওয়ারে রেস অনলাইন নামক একটি প্রতিষ্ঠানে কাজ করতেন।

মহাখালীর মেট্রোপলিটন হাসপাতালের তথ্যকেন্দ্রের কর্মী মো. আরিফুল গণমাধ্যমকে জানান, তাদের হাসপাতালে একজন নারীকে মৃত অবস্থায় আনা হয়েছে। তার বয়স ত্রিশের মতো হতে পারে।

১৪ তলা বিশিষ্ট খাজা টাওয়ারে ব্যাংক, তথ্যপ্রযুক্তি প্রতিষ্ঠানসহ কয়েকটি বেসরকারি প্রতিষ্ঠানের অফিস রয়েছে। ভবনের নবম ও দশম তলা মিলিয়ে রেস অনলাইনের কার্যালয়, সার্ভার রুম।

রেস অনলাইনের একজন কর্মী জানান, তাদের একজন নারী সহকর্মী পেছন দিকের বারান্দা থেকে তার ধরে নামার সময় পড়ে গেছেন বলে তারা শুনেছেন।

পবন সাহা নামের এক দোকানকর্মী বলেন, অগ্নিকাণ্ডের কিছুক্ষণ পর সাড়ে ৫টার দিকে ভবনের ১১ বা ১২ তলা থেকে তার ধরে নামার চেষ্টা করছিলেন কয়েকজন। এসময় বোরকা পরিহিতা একজন নারী নামতে গিয়ে প্রথমে এসির ওপর পড়েন, তারপর নিচে পড়ে যান। নিচে ভিড়ের মধ্যে থেকে একজন ওই নারীকে ধরার চেষ্টা করেছিলেন। ওই নারী তার ওপর পড়লে তিনিও আহত হন। পরে দুইজনকেই হাসপাতালে পাঠানো হয়।

এদিকে অনেকেই ভবনের বিভিন্ন ফ্লোরের বারান্দায় দাঁড়িয়ে মোবাইলের লাইট জ্বালিয়ে বাঁচার আকুতি জানাচ্ছেন। তারা ভবনটিতে আটকে পড়েছেন। তারা ওপর থেকে ফায়ার সার্ভিসের কর্মীদের বার বার আকুতি জানাচ্ছেন তাদের নামিয়ে আনতে। তাদের মধ্যে অনেকের শ্বাসকষ্ট হচ্ছে বলে ইশারায় জানাচ্ছেন।

সর্বশেষ তথ্য অনুযায়ী, ফায়ার সার্ভিস টিটিএলের সাহায্যে খাজা টাওয়ারের বিভিন্ন ফ্লোরের বাইরের গ্লাস ভাঙছে। একইসঙ্গে কোনো ফ্লোরে আগুন ও মানুষ আছে কি না তা দেখছেন ফায়ার ফাইটাররা।

ফায়ার সার্ভিসের নিয়ন্ত্রণ কক্ষের ডিউটি অফিসার রাফি আল ফারুক বলেন, খাজা টাওয়ারের আগুন নিয়ন্ত্রণে আমাদের ১১টি ইউনিট কাজ করছে। ঘটনাস্থলে দুটি লেডার সংবলিত অগ্নিনির্বাপণ ও উদ্ধারকাজের গাড়ি টিটিএল নেওয়া হয়েছে। টিটিএল দিয়ে টাওয়ারের বিভিন্ন ফ্লোরের গ্লাস ভাঙা হচ্ছে।

বৃহস্পতিবার বিকেল ৫টার দিকে মহাখালীর আমতলী মোড়ের কাছের খাজা টাওয়ারে আগুন লাগে। এর কিছুক্ষণ পর থেকেই আগুন নেভানোর কাজ শুরু করে ফায়ার সার্ভিস। পরে তাদের সঙ্গে যোগ দেয় সেনা নৌ ও বিমান বাহিনীর একটি সমন্বিত দলও। শেষ খবর পর্যন্ত আগুন এখনো নিয়ন্ত্রণে আসেনি।