ঢাকা ০৩:৪২ অপরাহ্ন, সোমবার, ০৮ এপ্রিল ২০২৪, ২৫ চৈত্র ১৪৩০ বঙ্গাব্দ
পরিস্থিতি স্বাভাবিক হলেই গ্রেপ্তার করা হবে: কমান্ডার মঈন

আদম তমিজী হক আত্মহত্যা ও স্ত্রীকে হত্যার হুমকি দেওয়ায় র‌্যাব তার বাসায় ঢোকেনি

হক গ্রুপ অব ইন্ডাস্ট্রিজের ব্যবস্থাপনা পরিচালক, সাম্প্রতিক সময়ে ব্যাপক আলোচিত আদম তমিজী হকের বিরুদ্ধে মামলা রয়েছে বেশ কয়েকটি। এর মধ্যে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের মামলাও রয়েছে। তাকে আইনের আওতায় আনতে বৃহস্পতিবার রাত সাড়ে ৯টার দিকে রাজধানীর গুলশান-২ এর ১১১ নম্বর রোডের ৮ নম্বর বাড়িতে যান র‌্যাব সদস্যরা।

র‌্যাবের আইন ও গণমাধ্যম শাখার পরিচালক, কমান্ডার খন্দকার আল মঈন জানান, র‌্যাব তার বাড়ির চারদিকে অবস্থান নেয়। বাড়িতে একজন বিদেশি মেহমানও ছিলেন। এ সময় আদম তমিজী হক র‌্যাবকে উদ্দেশ্য করে বলেন, তাকে গ্রেপ্তার করতে বাড়িতে ঢুকলে তিনি আত্মহত্যা করবেন। তার আগে স্ত্রীকেও মেরে ফেলবেন। এই পরিস্থিতিতে র‌্যাব তাকে আটক করা থেকে বিরত থাকে। তবে তার বাড়িটি ঘিরে রাখা হয়েছে।

গত ১৩ নভেম্বর রাত ১২টায় এমিরেটস এয়ারলাইন্সের একটি বাণিজ্যিক ফ্লাইটে ঢাকা ফিরেন আদম তমিজী হক। দেশে ফিরে নিজের ভেরিফায়েড ফেসবুক পেজে আদম তমিজী হক বলেন, বিমানবন্দরে পৌঁছানোর পর আমাকে ভিআইপি মর্যাদা দেওয়া হয়নি। বিমানবন্দরে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী আমাকে একটি অফিসে ৩ ঘণ্টা বসিয়ে রেখেছিল। বিমানবন্দরের অফিসে বসে থাকাকালীন আমি কয়েকবার তাদের সঙ্গে মেজাজ হারিয়েছি তবে তারা কখনই আমাকে অসম্মান ব্যবহার করেনি। আমি এখন নিরাপদ এবং বাড়িতে আছি।

এর আগে, গত সেপ্টেম্বরে আদম তমিজী ফেসবুকে লাইভে এসে অভিযোগ করেন, গাজীপুরের একজন প্রতিমন্ত্রী তার ব্যবসা বাজেয়াপ্ত করার চেষ্টা করছেন, তাকে তার ব্যবসার সুরক্ষার জন্য বিদেশ থেকে বাংলাদেশে ফিরে আসতে বাধ্য করছেন।

এ ছাড়াও ফেসবুকে লাইভে এসে তিনি নিজের পাসপোর্ট পুড়িয়ে ফেলেন। একই সঙ্গে আওয়ামী লীগের নেতৃত্ব নিয়ে নানান অবমাননাকর মন্তব্য করেন তিনি। এর ফলে তাকে আওয়ামী লীগের পদ থেকে অব্যাহতি দেওয়া হয়।

ট্যাগস

পরিস্থিতি স্বাভাবিক হলেই গ্রেপ্তার করা হবে: কমান্ডার মঈন

আদম তমিজী হক আত্মহত্যা ও স্ত্রীকে হত্যার হুমকি দেওয়ায় র‌্যাব তার বাসায় ঢোকেনি

আপডেট টাইম : ০৭:৩৯:২৪ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৬ নভেম্বর ২০২৩

হক গ্রুপ অব ইন্ডাস্ট্রিজের ব্যবস্থাপনা পরিচালক, সাম্প্রতিক সময়ে ব্যাপক আলোচিত আদম তমিজী হকের বিরুদ্ধে মামলা রয়েছে বেশ কয়েকটি। এর মধ্যে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের মামলাও রয়েছে। তাকে আইনের আওতায় আনতে বৃহস্পতিবার রাত সাড়ে ৯টার দিকে রাজধানীর গুলশান-২ এর ১১১ নম্বর রোডের ৮ নম্বর বাড়িতে যান র‌্যাব সদস্যরা।

র‌্যাবের আইন ও গণমাধ্যম শাখার পরিচালক, কমান্ডার খন্দকার আল মঈন জানান, র‌্যাব তার বাড়ির চারদিকে অবস্থান নেয়। বাড়িতে একজন বিদেশি মেহমানও ছিলেন। এ সময় আদম তমিজী হক র‌্যাবকে উদ্দেশ্য করে বলেন, তাকে গ্রেপ্তার করতে বাড়িতে ঢুকলে তিনি আত্মহত্যা করবেন। তার আগে স্ত্রীকেও মেরে ফেলবেন। এই পরিস্থিতিতে র‌্যাব তাকে আটক করা থেকে বিরত থাকে। তবে তার বাড়িটি ঘিরে রাখা হয়েছে।

গত ১৩ নভেম্বর রাত ১২টায় এমিরেটস এয়ারলাইন্সের একটি বাণিজ্যিক ফ্লাইটে ঢাকা ফিরেন আদম তমিজী হক। দেশে ফিরে নিজের ভেরিফায়েড ফেসবুক পেজে আদম তমিজী হক বলেন, বিমানবন্দরে পৌঁছানোর পর আমাকে ভিআইপি মর্যাদা দেওয়া হয়নি। বিমানবন্দরে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী আমাকে একটি অফিসে ৩ ঘণ্টা বসিয়ে রেখেছিল। বিমানবন্দরের অফিসে বসে থাকাকালীন আমি কয়েকবার তাদের সঙ্গে মেজাজ হারিয়েছি তবে তারা কখনই আমাকে অসম্মান ব্যবহার করেনি। আমি এখন নিরাপদ এবং বাড়িতে আছি।

এর আগে, গত সেপ্টেম্বরে আদম তমিজী ফেসবুকে লাইভে এসে অভিযোগ করেন, গাজীপুরের একজন প্রতিমন্ত্রী তার ব্যবসা বাজেয়াপ্ত করার চেষ্টা করছেন, তাকে তার ব্যবসার সুরক্ষার জন্য বিদেশ থেকে বাংলাদেশে ফিরে আসতে বাধ্য করছেন।

এ ছাড়াও ফেসবুকে লাইভে এসে তিনি নিজের পাসপোর্ট পুড়িয়ে ফেলেন। একই সঙ্গে আওয়ামী লীগের নেতৃত্ব নিয়ে নানান অবমাননাকর মন্তব্য করেন তিনি। এর ফলে তাকে আওয়ামী লীগের পদ থেকে অব্যাহতি দেওয়া হয়।