ঢাকা ০৫:৫৪ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ২৩ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ১০ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ
শিরোনাম :
মির্জাগঞ্জে আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা ও  শহীদ  দিবসে বাংলাদেশ সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় শিক্ষক সমিতির শ্রদ্ধা নিবেদন  ৫২’র ভাষা শহীদদের প্রতি মিরপুর রিপোর্টার্স ক্লাবের শ্রদ্ধা নিবেদন প্রাণিসম্পদ অধিদপ্তরকে দুর্নীতির স্বর্গরাজ্যে পরিণত করেছেন ডিজি ডা: মো: এমদাদুল হক তালুকদার! বাসাবো এলাকায় রাজউকের উচ্ছেদ অভিযান; ৪ লক্ষ টাকা জরিমানা দুই সাব-রেজিস্ট্রারের বদলী উপলক্ষে বিদায় সংবর্ধনা দুর্নীতির বিরুদ্ধে শূন্য সহনশীল হবেন দুদক কর্মকর্তারা বলিষ্ঠ নেতৃত্বের মাধ্যমে ভূমি অফিস পরিচালনা করুন: ভূমিমন্ত্রী বাসাবো এলাকায় রাজউকের উচ্ছেদ অভিযান; ৪ লক্ষ টাকা জরিমানা মাগুরায় মাদরাসার সভাপতির ধমকে সুপার অজ্ঞান  মাগুরায় সাকিবের পৃষ্ঠপোষকতায় মহান একুশ উপলক্ষে শহরে আলপনার উদ্যোগ 

কথিত বাংলাদেশি অনুপ্রবেশকারীদের ফেরত পাঠানোর দাবি বিজেপি এমপির

লোকসভায় ভারতের ঝাড়খন্ড রাজ্যের বিজেপি দলীয় এমপি নিশিকান্ত দুবে কথিত বাংলাদেশি অনুপ্রবেশকারীদেরকে বাংলাদেশে ফেরত পাঠাতে ভারত সরকারের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন। পাশাপাশি তিনি দাবি করেছেন ঝাড়খন্ড, বিহার ও পশ্চিমবঙ্গের জনসংখ্যাতত্ত্ব পরিবর্তন করে দিচ্ছে কথিত অবৈধ বাংলাদেশি অভিবাসীরা। এ জন্য তিনি এসব রাজ্যে জাতীয় নাগরিকপঞ্জি বা এনআরসি করার দাবি জানান। দুবে বলেন, ১৫ বছর ধরে আমি এমপি। এ সময়ে শতবার এই ইস্যু উত্থাপন করেছি।
এ খবর দিয়ে বার্তা সংস্থা পিটিআই বলছে লোকসভায় জিরো আওয়ারে তিনি বলেন, আমরা শিডিউল কাস্ট এবং শিডিউল ট্রাইব নিয়ে কথা বলি। উপজাতি সংখ্যাগরিষ্ঠ হিসেবে বিহার থেকে আমার রাজ্য ঝাড়খন্ড আলাদা। ১৯৫১ সালে ঝাড়খন্ডে শতকরা ৩৬ ভাগ মানুষ ছিলেন উপজাতি। এখন তা মাত্র শতকরা ২৪ ভাগ। তার দাবি ঝাড়খন্ডে উপজাতি জনগোষ্ঠী কমে গেছে। তার ভাষায়- বর্তমান পরিস্থিতি হলো বাংলাদেশি অভিবাসীরা আসছে এবং উপজাতিদের বিয়ে করছে।

গোড্ডা, পাকুর, সাহিবগঞ্জ, দেওঘর এবং জামতারার মতো জেলাগুলোতে মুসলিম জনসংখ্যা ক্রমশ বাড়ছে।

এটা কোনো হিন্দু-মুসলিম ইস্যু নয়। তিনি দাবি করেন, একই রকম অবস্থা প্রত্যক্ষ করা গেছে প্রতিবেশী বিহার ও পশ্চিমবঙ্গে। নিশিকান্ত দুবে বলেন, ‘(পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী) মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় যখন এমপি ছিলেন তিনি বলেছিলেন বাংলাদেশিদের কারণে পশ্চিমবঙ্গের জনসংখ্যাতত্ত্ব বদলে যাচ্ছে। তিনি মুখ্যমন্ত্রী হওয়ার পর মালদা, মুর্শিদাবাদ এবং কালিয়াচক বাংলাদেশি অনুপ্রবেশকারীতে পূর্ণ হয়ে গেছে। একই অবস্থা বিহারের কাতিহার, কিষাণগঞ্জ, আরারিয়া, পুরনিয়া এবং ভাগলপুরের। বাংলাদেশিদের কারণে বদলে যাচ্ছে জনসংখ্যাতত্ত্ব। ভারত সরকারের উচিত এনআরসি করা এবং বাংলাদেশি সব অনুপ্রবেশকারীকে ফেরত পাঠানো।’

ট্যাগস

মির্জাগঞ্জে আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা ও  শহীদ  দিবসে বাংলাদেশ সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় শিক্ষক সমিতির শ্রদ্ধা নিবেদন 

কথিত বাংলাদেশি অনুপ্রবেশকারীদের ফেরত পাঠানোর দাবি বিজেপি এমপির

আপডেট টাইম : ১১:১২:২৯ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ৭ ডিসেম্বর ২০২৩

লোকসভায় ভারতের ঝাড়খন্ড রাজ্যের বিজেপি দলীয় এমপি নিশিকান্ত দুবে কথিত বাংলাদেশি অনুপ্রবেশকারীদেরকে বাংলাদেশে ফেরত পাঠাতে ভারত সরকারের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন। পাশাপাশি তিনি দাবি করেছেন ঝাড়খন্ড, বিহার ও পশ্চিমবঙ্গের জনসংখ্যাতত্ত্ব পরিবর্তন করে দিচ্ছে কথিত অবৈধ বাংলাদেশি অভিবাসীরা। এ জন্য তিনি এসব রাজ্যে জাতীয় নাগরিকপঞ্জি বা এনআরসি করার দাবি জানান। দুবে বলেন, ১৫ বছর ধরে আমি এমপি। এ সময়ে শতবার এই ইস্যু উত্থাপন করেছি।
এ খবর দিয়ে বার্তা সংস্থা পিটিআই বলছে লোকসভায় জিরো আওয়ারে তিনি বলেন, আমরা শিডিউল কাস্ট এবং শিডিউল ট্রাইব নিয়ে কথা বলি। উপজাতি সংখ্যাগরিষ্ঠ হিসেবে বিহার থেকে আমার রাজ্য ঝাড়খন্ড আলাদা। ১৯৫১ সালে ঝাড়খন্ডে শতকরা ৩৬ ভাগ মানুষ ছিলেন উপজাতি। এখন তা মাত্র শতকরা ২৪ ভাগ। তার দাবি ঝাড়খন্ডে উপজাতি জনগোষ্ঠী কমে গেছে। তার ভাষায়- বর্তমান পরিস্থিতি হলো বাংলাদেশি অভিবাসীরা আসছে এবং উপজাতিদের বিয়ে করছে।

গোড্ডা, পাকুর, সাহিবগঞ্জ, দেওঘর এবং জামতারার মতো জেলাগুলোতে মুসলিম জনসংখ্যা ক্রমশ বাড়ছে।

এটা কোনো হিন্দু-মুসলিম ইস্যু নয়। তিনি দাবি করেন, একই রকম অবস্থা প্রত্যক্ষ করা গেছে প্রতিবেশী বিহার ও পশ্চিমবঙ্গে। নিশিকান্ত দুবে বলেন, ‘(পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী) মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় যখন এমপি ছিলেন তিনি বলেছিলেন বাংলাদেশিদের কারণে পশ্চিমবঙ্গের জনসংখ্যাতত্ত্ব বদলে যাচ্ছে। তিনি মুখ্যমন্ত্রী হওয়ার পর মালদা, মুর্শিদাবাদ এবং কালিয়াচক বাংলাদেশি অনুপ্রবেশকারীতে পূর্ণ হয়ে গেছে। একই অবস্থা বিহারের কাতিহার, কিষাণগঞ্জ, আরারিয়া, পুরনিয়া এবং ভাগলপুরের। বাংলাদেশিদের কারণে বদলে যাচ্ছে জনসংখ্যাতত্ত্ব। ভারত সরকারের উচিত এনআরসি করা এবং বাংলাদেশি সব অনুপ্রবেশকারীকে ফেরত পাঠানো।’