ঢাকা ০৭:২৫ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ২৩ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ১১ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ
শিরোনাম :
মির্জাগঞ্জে আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা ও  শহীদ  দিবসে বাংলাদেশ সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় শিক্ষক সমিতির শ্রদ্ধা নিবেদন  ৫২’র ভাষা শহীদদের প্রতি মিরপুর রিপোর্টার্স ক্লাবের শ্রদ্ধা নিবেদন প্রাণিসম্পদ অধিদপ্তরকে দুর্নীতির স্বর্গরাজ্যে পরিণত করেছেন ডিজি ডা: মো: এমদাদুল হক তালুকদার! বাসাবো এলাকায় রাজউকের উচ্ছেদ অভিযান; ৪ লক্ষ টাকা জরিমানা দুই সাব-রেজিস্ট্রারের বদলী উপলক্ষে বিদায় সংবর্ধনা দুর্নীতির বিরুদ্ধে শূন্য সহনশীল হবেন দুদক কর্মকর্তারা বলিষ্ঠ নেতৃত্বের মাধ্যমে ভূমি অফিস পরিচালনা করুন: ভূমিমন্ত্রী বাসাবো এলাকায় রাজউকের উচ্ছেদ অভিযান; ৪ লক্ষ টাকা জরিমানা মাগুরায় মাদরাসার সভাপতির ধমকে সুপার অজ্ঞান  মাগুরায় সাকিবের পৃষ্ঠপোষকতায় মহান একুশ উপলক্ষে শহরে আলপনার উদ্যোগ 

‘এখন থেকে রাজনীতি করবেন সাকিব আল হাসান’

আসন্ন দ্বাদশ সংসদ নির্বাচনে অংশ নিতে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের হয়ে ৩ আসন থেকে মনোনয়ন ফরম সংগ্রহ করেছেন সাকিব আল হাসান। হুট করে নির্বাচন করতে আসায় জাতীয় দলের এই অধিনায়ককে নিয়ে মিশ্র প্রতিক্রিয়া দেখা গেছে সাধারণ মানুষদের মধ্যে। তবে সাকিব এখন থেকে সক্রিয় রাজনীতি করবেন বলে জানান আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং যোগাযোগ ও সেতু মন্ত্রী ওবায়দুল কাদের।

গতকাল আওয়ামী লীগ সভাপতির কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলন করেন ওবায়দুল কাদের। সেখানে সাকিবের প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘এখন থেকে সাকিব রাজনীতি করবে।’

ক্রিকেট খেলা অবস্থায় সাকিবের রাজনীতিতে আসায় নেতিবাচক কথাও উঠছে দেশজুড়ে। সাকিবের জন্মস্থান মাগুরার লোকজনও সাকিবের নির্বাচন করা খুব একটা ভালো চোখে দেখছেন না।  এ প্রসঙ্গে পাশের দেশ ভারতের উদাহরণ দেন আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক। তিনি বলেন, ‘ভারতের পশ্চিমবঙ্গে কত নায়ক-নায়িকা এমপি। ক্রিকেটের কথা বললে, কিছুদিন আগেই তো গৌতম গম্ভীর (ভারতের হয়ে ২০১১ বিশ্বকাপজয়ী ক্রিকেটার)… তারা তো সরাসরি দল করে না। ভারতের মতো বৃহৎ গণতান্ত্রিক দেশেও আছে।’ গম্ভীররা ক্রিকেট থেকে অবসর নিয়ে রাজনীতিতে এসেছেন। এক্ষেত্রে এখন তাকে মনোনয়ন দিলে তার খেলা নষ্ট হবে কিনা প্রশ্নের উত্তরে ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘এ বিষয়ে তার চিন্তা ভাবনা আছে।

সে রাজনীতি করবে, এটাই তার ইচ্ছা। সে জনগণের সেবা করবে। বাংলাদেশের যেকোনও জায়গায় সে দাঁড়াতে পারে।’ এর আগে মাগুরা ১, ২ ও ঢাকা ১০ আসনের জন্য মনোনয়ন ক্রয় করেন সাকিব। তবে ঠিক কোন আসনে তাকে আওয়ামী লীগ নমিনেশন দিবে সেটা নিশ্চিত নয়। এর মধ্যে গত বৃহস্পতিবার ওবায়দুল কাদেরের সঙ্গে রুদ্ধদ্বার বৈঠক করেন সাকিব। ধারণা করা হচ্ছে, মনোনয়ন নিয়েই আলোচনা করেন তারা।

এদিকে ২০১৩ সালে এক ফেসবুক পোস্টে সাকিব ঘোষণা দিয়েছিলেন, কখনও রাজনীতি করবেন না। তবে এবার নিজের অবস্থান থেকে সরে এসেছেন বাংলাদেশের ইতিহাসের অন্যতম সেরা এই ক্রিকেটার। সাকিব বর্তমানে বাংলাদেশ টেস্ট ও টি-টোয়েন্টি দলের অধিনায়ক। আইসিসি বিশ্বকাপ শেষে ওয়ানডেতে অধিনায়কত্ব না করার ঘোষণা আগেই দিয়ে রাখেন তিনি। যদিও ওয়ানডেতে এখনও নতুন অধিনায়কের নাম জানায়নি বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি)।

২০২৫ চ্যাম্পিয়নস ট্রফি খেলে ওয়ানডে থেকে অবসর নেওয়ার ইচ্ছা সাকিবের। এর আগে সাকিব নিজেই জানান এ কথা। সামনে সাকিব পালা ক্রমে বিদায় জানাবেন বাকি দুই ফরম্যাট থেকেও। তবে যদি নির্বাচনে অংশ নিয়ে জিতে যান, তাহলে সংসদ সদস্য হিসেবে চ্যাম্পিয়নস ট্রফিতে মাঠে নামবেন ওয়ানডে ও টি-টোয়েন্টির এক নম্বর অলরাউন্ডার। এর আগে সংসদ সদস্য নির্বাচিত হওয়ার পর ইংল্যান্ডে ২০১৯ বিশ্বকাপে অধিনায়ক হিসেবে খেলেন মাশরাফি বিন মুর্তজা।

ট্যাগস

মির্জাগঞ্জে আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা ও  শহীদ  দিবসে বাংলাদেশ সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় শিক্ষক সমিতির শ্রদ্ধা নিবেদন 

‘এখন থেকে রাজনীতি করবেন সাকিব আল হাসান’

আপডেট টাইম : ০৭:৪৬:৩০ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ২৪ নভেম্বর ২০২৩

আসন্ন দ্বাদশ সংসদ নির্বাচনে অংশ নিতে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের হয়ে ৩ আসন থেকে মনোনয়ন ফরম সংগ্রহ করেছেন সাকিব আল হাসান। হুট করে নির্বাচন করতে আসায় জাতীয় দলের এই অধিনায়ককে নিয়ে মিশ্র প্রতিক্রিয়া দেখা গেছে সাধারণ মানুষদের মধ্যে। তবে সাকিব এখন থেকে সক্রিয় রাজনীতি করবেন বলে জানান আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং যোগাযোগ ও সেতু মন্ত্রী ওবায়দুল কাদের।

গতকাল আওয়ামী লীগ সভাপতির কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলন করেন ওবায়দুল কাদের। সেখানে সাকিবের প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘এখন থেকে সাকিব রাজনীতি করবে।’

ক্রিকেট খেলা অবস্থায় সাকিবের রাজনীতিতে আসায় নেতিবাচক কথাও উঠছে দেশজুড়ে। সাকিবের জন্মস্থান মাগুরার লোকজনও সাকিবের নির্বাচন করা খুব একটা ভালো চোখে দেখছেন না।  এ প্রসঙ্গে পাশের দেশ ভারতের উদাহরণ দেন আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক। তিনি বলেন, ‘ভারতের পশ্চিমবঙ্গে কত নায়ক-নায়িকা এমপি। ক্রিকেটের কথা বললে, কিছুদিন আগেই তো গৌতম গম্ভীর (ভারতের হয়ে ২০১১ বিশ্বকাপজয়ী ক্রিকেটার)… তারা তো সরাসরি দল করে না। ভারতের মতো বৃহৎ গণতান্ত্রিক দেশেও আছে।’ গম্ভীররা ক্রিকেট থেকে অবসর নিয়ে রাজনীতিতে এসেছেন। এক্ষেত্রে এখন তাকে মনোনয়ন দিলে তার খেলা নষ্ট হবে কিনা প্রশ্নের উত্তরে ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘এ বিষয়ে তার চিন্তা ভাবনা আছে।

সে রাজনীতি করবে, এটাই তার ইচ্ছা। সে জনগণের সেবা করবে। বাংলাদেশের যেকোনও জায়গায় সে দাঁড়াতে পারে।’ এর আগে মাগুরা ১, ২ ও ঢাকা ১০ আসনের জন্য মনোনয়ন ক্রয় করেন সাকিব। তবে ঠিক কোন আসনে তাকে আওয়ামী লীগ নমিনেশন দিবে সেটা নিশ্চিত নয়। এর মধ্যে গত বৃহস্পতিবার ওবায়দুল কাদেরের সঙ্গে রুদ্ধদ্বার বৈঠক করেন সাকিব। ধারণা করা হচ্ছে, মনোনয়ন নিয়েই আলোচনা করেন তারা।

এদিকে ২০১৩ সালে এক ফেসবুক পোস্টে সাকিব ঘোষণা দিয়েছিলেন, কখনও রাজনীতি করবেন না। তবে এবার নিজের অবস্থান থেকে সরে এসেছেন বাংলাদেশের ইতিহাসের অন্যতম সেরা এই ক্রিকেটার। সাকিব বর্তমানে বাংলাদেশ টেস্ট ও টি-টোয়েন্টি দলের অধিনায়ক। আইসিসি বিশ্বকাপ শেষে ওয়ানডেতে অধিনায়কত্ব না করার ঘোষণা আগেই দিয়ে রাখেন তিনি। যদিও ওয়ানডেতে এখনও নতুন অধিনায়কের নাম জানায়নি বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি)।

২০২৫ চ্যাম্পিয়নস ট্রফি খেলে ওয়ানডে থেকে অবসর নেওয়ার ইচ্ছা সাকিবের। এর আগে সাকিব নিজেই জানান এ কথা। সামনে সাকিব পালা ক্রমে বিদায় জানাবেন বাকি দুই ফরম্যাট থেকেও। তবে যদি নির্বাচনে অংশ নিয়ে জিতে যান, তাহলে সংসদ সদস্য হিসেবে চ্যাম্পিয়নস ট্রফিতে মাঠে নামবেন ওয়ানডে ও টি-টোয়েন্টির এক নম্বর অলরাউন্ডার। এর আগে সংসদ সদস্য নির্বাচিত হওয়ার পর ইংল্যান্ডে ২০১৯ বিশ্বকাপে অধিনায়ক হিসেবে খেলেন মাশরাফি বিন মুর্তজা।